July 17, 2024, 10:07 pm

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
পানছড়িতে মা মনসা পুঁথি পাঠের আসর জমে উঠেছে গোপাল হাজারীর বাড়িতে কোট বি*রোধীদের উপর হাম*লার প্রতি*বাদে ঝিনাইদহে ছাত্রদলের বিক্ষো*ভ নবাগত গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ফুলদিয়ে শুভেচ্ছা জানালেন যুবলীগ সভাপতি তানোরে বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবল টুর্নামেন্ট সম্পন্ন নড়াইল শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র পৌর মেয়র আনজুমান আরা সভাপতি নির্বাচিত বাংলাদেশ জমইয়াতে হিজবুল্লাহর নায়বে আমীর হযরত মাওলানা শাহ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহর ইন্তে*কাল ধামইরহাটে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শহীদুজ্জামানের গাছ রোপন লালমনিরহাটে ফেন্সিডিল, মোটরসাইকেলসহ দুইজন আ*টক  পুঠিয়ায় পূর্ব শ*ত্রুতার জেরে মসজিদের ইমামকে হ*ত্যার চেষ্টা নিহ*ত শিক্ষার্থীদের স্মরণে গাজীপুরে গায়েবানা জানাজা
কাউন্সিলর সাগরিকাকে গণসংবর্ধনা

কাউন্সিলর সাগরিকাকে গণসংবর্ধনা

আলিফ হোসেন, তানোরঃ
রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন রাসিক নির্বাচনে সংরক্ষিত আসনে বিজয়ী কাউন্সিলর তৃতীয় লিঙ্গের সুলতানা আহমেদ সাগরিকাকে গণসংবর্ধনা দেয়া হয়েছে।
জানা গেছে, গত ২৫ জুন রোববার ভারশোঁ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) উদ্যোগে সাগরিকাকে গণসংবর্ধনা দেয়া হয়। এদিন ইউপি ভবন চত্ত্বরে আয়োজিত গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ইউপি আওয়ামী লীগের সম্পাদক ও চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমন কাউন্সলর সুলতানা আহম্মেদ সাগরিকার হাতে সম্মমনা ক্রেষ্ট তুলে দেন। এসময় ইউপি সদস্য (মেম্বার) সহীদুল ইসলাম চিতল এবং সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ এলাকার সুধিজনগণ উপস্থিত ছিলেন।
রাজশাহীর তানোরের সীমান্তবর্তী মান্দার ভারশোঁ ইউনিয়নের (ইউপি) ভারশোঁ গ্রামের বাসিন্দা তৃতীয় লিঙ্গের সুলতানা আহমেদ সাগরিকা। একটা সময় যেই সাগরিকাকে নিয়ে গ্রামবাসি নেতিবাচক মন্তব্য করতো, আজ সেই সাগরিকাকে নিয়ে উচ্ছ্বাসে মাতোয়ারা ভারশোঁ গ্রামবাসি। এখন গ্রামবাসি মনে করছে সাগরিকা ভারশোঁর গৌরব। ভারশোঁর বাসিন্দা হয়ে তিনি রাসিকে প্রতিনিধিত্ব করবেন এটা সত্যিই মিরাক্কেল, ভারশোঁর মানুষের কাছে তিনি নতুন অধ্যায়।
জানা গেছে, রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে ছয় হাজার ২৬৩ জন ভোটারের সমর্থন নিয়ে বাজিমাত করেছেন তৃতীয় লিঙ্গের সেই সাগরিকা। প্রথমবারের মতো তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীর কেউ রাজশাহী সিটি নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। আর প্রথমবারই সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে বাজিমাত করেছেন সেই সুলতানা আহমেদ সাগরিকা। নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাস তার। জনগণের ভালোবাসার এই ঋণ জনকল্যাণে নিজেকে নিবেদিত করে শোধ করতে চান সাগরিকা। গতtবুধবার বিকাল ৪টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে ভোটের ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন করা হয়। রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রাসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন এ ফল ঘোষণা করে জানান, সাগরিকা বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। সাগরিকা রাসিকের ১৯, ২০ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। তৃতীয় লিঙ্গের অধিকার আদায়ের সংগঠন ‘দিনের আলো হিজরা সংঘ’ এর সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। সুবিধাবঞ্চিত এই সাগরিকা হিজড়া নবম শ্রেণিতে ওঠার পর আর বিদ্যালয়ে টিকতে পারেননি। আগের ক্লাসগুলোও পার করেছেন নানান সীমাবদ্ধতায়। শেষমেশ বাড়িও ছাড়তে হয়। এরপর নানান সংগ্রামে কেটেছে জীবন। সব বাধা বিপত্তি পেরিয়ে সাগরিকা এখন জনপ্রতিনিধি। এখন জনগণের সেবা করতে চান তিনি। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হয়ে নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করে তৃতীয় লিঙ্গের সুলতানা আহমেদ সাগরিকা বলেন, ভোটাররা আমাকে বলেছিলেন, তোমাকে চিনি, পাশে আছি, চিন্তা করো না। সেই কথা রেখেছেন ভোটাররা। প্রথম নির্বাচনেই ভোটারদের এমন ভালোবাসা পাব তা ভাবিনি। বিপুল ভোটের ব্যবধানে ভোটাররা আমাকে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করেছেন। সেই জনগণের কল্যাণেই কাজ করব। বিশেষ করে একটি অ্যাম্বুলেন্স রোগীদের জন্য ব্যবস্থা করাসহ সার্বক্ষণিক যোগাযোগের জন্য একটি হট নম্বর চালু করব। ২০০০ সালে ‘দিনের আলো হিজড়া সংঘ’ নামের সংগঠনের যাত্রা শুরু হয়। ২০০৫ সালে মহিলা অধিদপ্তর ও ২০০৭ সালে সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে নিবন্ধন পায় সংগঠনটি। সাগরিকা হিজড়াদের ভোটাধিকার, বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে অংশীদারিত্ব নিয়ে কাজ করেছেন। ২০২২ সাল থেকে রাজনীতিতে সক্রিয় হন। নির্বাচনে তার এই অংশগ্রহণকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।সুবিধাবঞ্চিত এই জনগোষ্ঠীকে সমাজের মূল ধারায় ফিরিয়ে আনতে সাগরিকা ইতিবাচক তৎপরতা দেখাবেন- এমনটাই প্রত্যাশা তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীদেরও।সাগরিকা বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকা ১৯, ২০ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ড। আমি শতভাগ আশাবাদী ছিলাম; কারণ মানুষ ব্যতিক্রম কিছু চেয়েছিলেন। এই ওয়ার্ডে আমি ছাড়াও পাঁচজন প্রার্থী ছিলেন। সবার মধ্যে আমার জনপ্রিয়তা বেশি। আমি আনারস প্রতীক পেয়েছিলাম। আমার কোথাও কোনো পিছুটান নেই। ভোটাররা আমাকে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করেছেন। আমি আমার জনগোষ্ঠী ছাড়াও ওয়ার্ডের বাসিন্দারের অধিকার আদায়ে কাজ করবো।এদিকেে কাউন্সিলর সাগরিকাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ভারশোঁ ইউপি আওয়ামী লীগের সম্পাদক ও চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমন, সদস্য (মেম্বার) সহিদুল ইসলাম চিতলপ্রমুখ।এদিকে ভারশোঁ ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সুমন ইউনিয়নবাসীর পক্ষ থেকে রাসিক কাউন্সিলর সুলতানা আহমেদ সাগরিকাকে গণসংবর্ধনা দেন।#

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD