April 16, 2024, 7:46 am

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
মুন্সীগঞ্জে বাংলাদেশ সমাচার মু্ন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি ছেলে না ফেরার দেশে চলে গেলেন সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে ২ জন ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল সুজানগর উপজেলা আ.লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব এর পিতার দাফন সম্পন্ন নড়াইলের সুলতান মঞ্চ চত্বরে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে ১৫ দিনব্যাপী সুলতান মেলার উদ্বোধন গোদাগাড়ীতে ট্রাকে টোল আদায়ের নামে চাঁদাবাজি, আটক ২ চড়ক পুঁজা নিয়ে গোলযোগ প্রতিপক্ষের লাঠির আঘাতে যুবক নিহত পাইকগাছায় মটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত ; চালক আহত একজন কিডনি রোগীকে বাঁচানোর জন্য সাহায্যের আবেদন পাইকগাছায় চড়ক পূজা, চৈত্র সংক্রান্তি মেলা ও বৈশাখী উৎসব অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় ঈদে বোয়ালিয়া ব্রীজে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়
প্রতিবন্ধীর জায়গায় ঘর তুলতে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

প্রতিবন্ধীর জায়গায় ঘর তুলতে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

হাফিজুর রহমান,
নিজস্ব প্রতিবেদক:
টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে প্রতিবন্ধির নিজ জমিতে ঘর তুলতে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে আদালতে ১৪৪ ধারা মামলা দায়ের করেছেন ওই প্রতিবন্ধী।

ভুক্তভোগী শারীরিক প্রতিবন্ধি মো. শাহ-আলম উপজেলার বালিভদ্র ইউনিয়নের কাকনিআটা গ্রামের মো. ওসমান গণির ছেলে। আর অভিযুক্ত ওই ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য মো. জাহাঙ্গীর আলম, তাঁর ভাই নান্নু ও মঞ্জু মিয়া গংরা।

এদিকে ধনবাড়ী থানার এসআই রফিকুল ইসলাম গতকাল শুক্রবার তদন্তে গিয়ে স্থানীয়দের কথা শুনে এসেছে এবং তাঁরা জানান জায়গাটি ক্রয় সূত্রে মালিক ওই প্রতিবন্ধি।

মামলার বিবরণ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার বাগুয়া মৌজায় ৮৯৫ ও ৮৯৬ নং দাগের নিচু জমিটি প্রতিবন্ধির বাবা ক্রয় করে। একাংশ অংশ ভরাট করে চাষাবাদ শুরু করে এবং ২০ বছর পূর্বেই ঘর নির্মাণ করে। বাকি অংশ ভরাট করে বাড়ি নির্মাণ করতে গেলে ইউপি সদস্যের পরিবার বাঁধা দেয়।

একই মৌজার ১১২০ ও ১১২১ নং দাগে ১০ শতাংশ জমিটি অভিযুক্তরা ৫০ বছরে আগে ক্রয় করে। সেখানে তাঁরা বাড়ি করে রেকর্ড করে নেন। কিন্তু প্রতিবন্ধির ওই দাগে চক্রান্ত করে মেম্বার বাঁধা দেন এবং প্রতিবন্ধি পরিবারকে হামলা চালিয়ে আহত করে।

এলাকাবাসী শালীসি বৈঠক বসালে সাবেক পৌর মেয়র মুঞ্জুরুল ইসলাম তপনের উপস্থিতে মুচলেকা দেন এবং ৭ ধারা মামলাতেও মুচলেকা দিয়ে অভিযুক্তরা ছাড়া পান। কিন্তু বর্তমানে আবারও নানা ধরনের হুমকী দিয়ে আসছে প্রতিবন্ধি পরিবারকে।

জমি দাতার ছেলে মোজাম্মেল হোসন বলেন, ‘ক্রয় সূত্রে জমির মালিক শাহ-আলম। জানতে চাইলে ওই ইউপি সদস্য বলেন, ‘তাঁরা মুচালিকা দিয়ে ছাড়া পান।’

শাহ-আলম বলেন, ‘জমি পৈতৃক ও ক্রয় করা। ক্ষমতার অপব্যবহার করে বাঁধা দেন তাঁরা। এর সুষ্ঠু প্রতিকার চাই।’

সবেক পৌর মেয়র মুঞ্জুরুল ইসলাম তপন বলেন, ‘জমিগুলো ওই প্রতিবন্ধির ও সকল কাগজপত্র সঠিক।’

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD