June 16, 2024, 2:58 am

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
ডাসার উপ‌জেলা বাসী‌কে প‌বিত্র ঈদুল আযহার শু‌ভেচ্চা জানা‌লেন কাতার প্রবাসী নাজমুল হাসান বেলাল পাইকগাছায় কোরবানি ঈদে চুইঝালের চাহিদা বেড়েছে পাইকগাছায় শেষ মূহুর্তে কোরবানীর পশুর হাট জমে উঠেছে সুন্দরগঞ্জে বুড়িমারী এক্সপ্রেসের যাত্রা বিরতির দাবীতে মানববন্ধনে এমপি নাহিদ নিগার বরগুনায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সাথে সংলাপ অনুষ্ঠিত নিখোঁজের একদিন পর পুকুর থেকে কলেজছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার ঘাটাইলে এস কে এম এর শোরুম উদ্বোধন খ্রিষ্টান নারীকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ের নামে প্রতারণা, ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এমপি আনিছ ইপিজেড থানা পুলিশের অভিযানে ৫০ লিটার দেশীয় তৈরী চোলাই মদসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
মধুপুরের অলিপুর গ্রামে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

মধুপুরের অলিপুর গ্রামে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

আঃ হামিদ মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌরশহরের মালাউড়ী (অলিপুর) গ্রামের নাছরিন নামের (২৩) এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। নাছরিনের শ্বশুরবাড়ির লোকজন ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার কথা বললেও নাছরিনের পরিবার দাবি করেছেন তাকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

এলাকাবাসী, নাছরিনের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মধুপুর পৌরশহরের অলিপুর গ্রামের আব্দুস ছালামের ছেলে শুভ (২৯) এর সাথে বেরীবাইদ ইউনিয়নের জাঙ্গালিয়া গ্রামের নাছির উদ্দিনের ছোট মেয়ে নাছরিনের সাথে প্রায় দেড় বছর আগে বিয়ে হয়। নাছরিন মাদারগঞ্জে কলেজের অনার্স ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী।

নাছরিনের শ্বাশুড়ি খোদেজা বেগম জানান, শনিবার রাতে রান্নাবান্না করে খাওয়া দাওয়া সেরে শুভ ও নাছরিন এক সাথেই ঘুমাতে যায়। সকাল থেকে আমরা শুভকে পাইনি। নাছরিনকে ডাকাডাকি করে সাড়া না পেয়ে ঘরে গিয়ে তার লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাই।

নাছরিনের ভাই রুবেল মিয়া জানান, বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ শুরু হয়। পারিবারিক ভাবে একাধিকবার নির্যাতনের শিকার হয়েছেন নাছরিন। নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে নাছরিন ১৪/১৫ দিন আগে বাবার বাড়িতে চলে আসে। ওই সময় আমরা নাছরিনকে শুভদের বাড়িতে না যাওয়ার জন্য বহুবার বুঝিয়েছি। নতুন করে জীবন গড়ার কথা বলেছি। কিন্তু নাছরিন বার বার বলেছে, ‘আবার নতুন সংসার করার চেয়ে ওকে যদি ভালো করতে পারি তাহলেই মঙ্গল।’ স্বামীকে ভালো করার জন্যই এসে লাশ হয়েছে আমার বোন। আমরা নাছরিনের হত্যার বিচার চাই।

দুপুরে মধুপুর থানার উপ-পরিদর্শক মেহেদি হাসান লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।
মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাজহারুল আমিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়তদন্তের রিপোর্টের পর জানা যাবে হত্যা না আত্মহত্যা।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD