May 19, 2024, 11:32 am

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
সুজানগরে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ পদোন্নতি পেয়ে সিনিয়র সহকারী সচিব হলেন তেঁতুলিয়ার এসিল্যান্ড মাহবুবুল হাসান ঝিনাইদহে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আহত ২১ গোদাগাড়ীতে ডিজিটাল প্রিপেইড মিটার স্থাপন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন উপজেলা চেয়ারম্যান ময়নাকে গণসংবর্ধনা আশুলিয়ায় সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা-কুপিয়ে এক যুবক আহত ও নারীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঝড়-বৃষ্টি আঁধার রাতে, জনগণ আছে শেখ হাসিনার সাথে- প্রতিমন্ত্রী শহীদুজ্জামান সরকার তেঁতুলিয়ায় পুরোনো ইট দিয়ে বাজার সেড নির্মাণ নড়াইলে বিলুপ্তির পথে বাবুই পাখির বাসা সাতক্ষীরার তালায় ট্রাক উল্টে ২ শ্রমিক নিহত আহত ১১
বেতাগীতে নির্মাণের সাত দিনের মাথায় মাদ্রাসা ভবনের সিঁড়ি ধস

বেতাগীতে নির্মাণের সাত দিনের মাথায় মাদ্রাসা ভবনের সিঁড়ি ধস

খাইরুল ইসলাম মুন্না বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি

বরগুনার বেতাগী উপজেলায় একটি নির্মাণাধীন মাদ্রাসা ভবনের সিঁড়ি নির্মাণের ৭ দিনের মাথায় গত সোমবার রাতে ধসে পড়েছে। নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম বেতাগী সালেহীয়া সিনিয়র মাদ্রাসা। এটি বেতাগী পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডে অবস্থিত। কয়েকদিন আগে মাদ্রাসাটির একতলা ভবনের ছাদের সাথে দোতলার ছাদে উঠার সিঁড়ি নির্মাণ করা হয়।

জানা গেছে, বেতাগী সালেহীয়া সিনিয়র মাদ্রাসার চারতলা ভবন নির্মাণের জন্য পটুয়াখালীর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নাজমুন সাদাত ট্রেডার্স কার্যাদেশ পায়। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অর্থায়নে ৩ কোটি ৪৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এর নির্মাণকাজ গত মে মাসে শুরু হয়। তবে শুরু থেকেই নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ ওঠে। স্থানীয় লোকজন এ বিষয়ে শিক্ষা প্রকৌশলী এবং ঠিকাদারের কাছে বারবার অভিযোগ করলেও তাঁরা কর্ণপাত করেননি।

সর্বশেষ গত সোমবার রাতে মাদ্রাসার দোতালায় উঠার সিঁড়ি ধসে পড়ে।স্থানীয়দের অভিযোগ, নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার কারায় সিঁড়িটি নির্মাণের কিছু দিন যেতে না যেতেই ভেঙে পড়েছে। এতে ওই ভবনের নির্মাণ কাজের মান নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। যেকোন সময় পুরো ভবনটি ভেঙ্গে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন এলাকাবাসী।

স্থানীয় বাসিন্দা ইউসুব মিয়া বলেন, ভবনটি নির্মাণের শুরু থেকেই ঠিকাদার নিন্মমানের উপকরণ ব্যবহার করে আসছে। ঢালাইতেও টেম্পারবিহীন সিমেন্ট ও কম রড দেওয়া হয়েছে। তাদের প্রয়োজনীয় মিক্সার মেশিনও ছিলো না। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য ঠিকাদারের সাথে যোগযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

তবে ভবন নির্মাণ কাজের তদারকির দায়িত্বে থাকা ঠিকাদারের প্রতিনিধি মো. তুষার বলেন, ভবনের ত্রুটিপূর্ণ প্রাক্কালনের কারণে সিঁড়ি ধ্বসে পড়েছে। প্রাক্কালনের মধ্যে সিঁড়ি নীচের স্তরে গোড়ায় দুটি পিলার থাকলে এ দূর্ঘটনা হতো না।

এ বিষয়ে বরগুনার শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ঢালাই কাজের ২১ থেকে ২৮ দিন পর সাটারিং খোলার নিয়ম থাকলেও শ্রমিকেরা একসপ্তাহের মাথায় সাটারিং খোলার কারণে সিঁড়ি ধসে পড়ে। ঢালাইয়ের কাজে নিন্মমানের মালামাল ব্যবহার করা হয়েছে বিষয়টি এমন নয়। আমরা দ্রুতই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD