May 19, 2024, 3:29 pm

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
সুজানগরে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ পদোন্নতি পেয়ে সিনিয়র সহকারী সচিব হলেন তেঁতুলিয়ার এসিল্যান্ড মাহবুবুল হাসান ঝিনাইদহে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আহত ২১ গোদাগাড়ীতে ডিজিটাল প্রিপেইড মিটার স্থাপন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন উপজেলা চেয়ারম্যান ময়নাকে গণসংবর্ধনা আশুলিয়ায় সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা-কুপিয়ে এক যুবক আহত ও নারীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঝড়-বৃষ্টি আঁধার রাতে, জনগণ আছে শেখ হাসিনার সাথে- প্রতিমন্ত্রী শহীদুজ্জামান সরকার তেঁতুলিয়ায় পুরোনো ইট দিয়ে বাজার সেড নির্মাণ নড়াইলে বিলুপ্তির পথে বাবুই পাখির বাসা সাতক্ষীরার তালায় ট্রাক উল্টে ২ শ্রমিক নিহত আহত ১১
গভীর রাতে ডাসার থানা পুলিশ নববধুকে জোরপূর্বক পরিবারের কাছে তুলে দেয়ার অভিযোগ

গভীর রাতে ডাসার থানা পুলিশ নববধুকে জোরপূর্বক পরিবারের কাছে তুলে দেয়ার অভিযোগ

রতন দে,মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ
মাদারীপুরের ডাসার থানা পুলিশ নবদম্পতিকে থানায় এনে গভীর রাতে নববধুকে মারধর জোরপূর্বক পিছনের গেইট দিয়ে টেনে হেজড়ে হাত-পা ধরে শুন্নে জাগিয়ে ফ্লীম স্টাইলে পরিবারের লোকজনের কাছে তুলে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
গতকাল শনিবার রাত আনুঃ ১২ঃ৫৫ মিনিটে এ ঘটনা ঘটে।
গত সোমবার হিন্দু ধর্মীয় নিয়মনীতি মেনে বিয়ে হয় এবং বিয়েকে আরও কার্যকর করতে ৯ নবেম্বর মাদারীপুর কোর্টের মাধ্যমে বিবাহ সম্পন্ন করেন।
ভুক্তভোগী ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, রাজৈর ও মুকসুদপুর থেকে নবদম্পতি
কিশোর মন্ডল(২০)
এবং দোলা বারুরী(১৭) বিয়ে সম্পন্ন করে পার্শ্ববর্তী মাদারীপুর জেলার ডাসার উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নের চলবল গ্রামে কিশোর মন্ডলের বোনের বাড়িতে বেড়াতে আসে। ডাসার থানা পুলিশের এসআই রতন মন্ডল গতকাল রাত ১০ঃ৩০ মিনিটে নববধুর পরিবারের লোকজন নিয়ে চলবল গ্রাম থেকে মারধর করে ডাসার থানায় নিয়ে আসেন এবং রাত ১টা ৫৫ মিনিটে পুনরায় নববধূকে মারধর করে টেনে হেজড়ে এক পর্যায় জোরপূর্বক হাত-পা ধরে শুন্নে জাগিয়ে থানার সিসি ক্যামরা আড়াল করে থানার ডাইনিং রুমের গেইট দিয়ে ফ্লীম স্টাইলে পরিবারের লোকজনের নিয়ে আসা মাইক্রো বাসে তুলে দিলেন ডাসার থানার এসআই রতন মন্ডল।
ভুক্তভোগী কিশোর মন্ডলের পিতা কমল মন্ডল বলেন, আমার ছেলে ধর্মীয় নিয়ম নীতি মেনে সুদূর পড়িয়ে দোলা বারুরীকে বিয়ে করেন এবং ওদের বিয়েকে কার্যকর করতে মাদারীপুর কোর্টের মাধ্যমেও বিয়ে করেন। আমার মেয়ের বাড়ি বেড়াতে গিলে সেখান থেকে ডাসার এসআই রতন ধরে থানার ভিতরে এনে মারধর আমার পুত্র বধুকে টেনে হেজড়ে তার পরিবারের কাছে দেয় গভীর রাতে। আমি রাত দুই টার দিকে থানায় এসে পুত্রবধু দোলাকে পাইনি। এসআই রতন মন্ডল পুত্র বধুকে কার কাছে দিল গভীর রাতে, আসলেই কি তার পরিবারের কাছে দিয়েছে, তাও জানি না।
আমার ছেলে কিশোর মন্ডলকে সকালে আমাদেরকে ফেরত দেন ডাসার থানা পুলিশ।
ডাসার থানার এসআই রতন মন্ডলের কাছে গভীর রাতে এভাবে জোরপূর্বক পিছনে গেইট দিয়ে ফ্লীম স্টাইলে দেয়ার বিষয় জানতে চাইলে বলেন, আপনার মেয়ে হলে কি করতেন, মেয়ের বাবা কোটি কোটি টাকার মালিক। মেয়ের বাবার অভিযোগের বিষয় জানতে চাইলে বলেন, রাজৈর থানায় অভিযোগ দিয়েছে। তবে অভিযোগের কপি দেখাতে পারেন নি।
এ ব্যাপারে ডাসার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ কামাল হোসেন বলেন, মুকসুদপুর থানায় একটি অপহরণের অভিযোগ হয়।তারা কললিস্টে তদন্ত করে দেখেন ডাসার থানার আওতায় আছে। মৌখিক কথার ভিক্তিতে তাৎক্ষনিক উদ্ধার করে করে থানায় আনা হয়।
গভীর রাতে টেনে হেজড়ে জোরপূর্বক পিছনে গেইট দিয়ে ফ্লীম স্টাইলে তুলে দেয়ার বিষয় জানতে চাইলে বলেন, এসআই রতন এটা করতে পারে না। বিষয়টি আমার জানতে হবে।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD