May 19, 2024, 3:27 pm

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
সুজানগরে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ পদোন্নতি পেয়ে সিনিয়র সহকারী সচিব হলেন তেঁতুলিয়ার এসিল্যান্ড মাহবুবুল হাসান ঝিনাইদহে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আহত ২১ গোদাগাড়ীতে ডিজিটাল প্রিপেইড মিটার স্থাপন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন উপজেলা চেয়ারম্যান ময়নাকে গণসংবর্ধনা আশুলিয়ায় সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা-কুপিয়ে এক যুবক আহত ও নারীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঝড়-বৃষ্টি আঁধার রাতে, জনগণ আছে শেখ হাসিনার সাথে- প্রতিমন্ত্রী শহীদুজ্জামান সরকার তেঁতুলিয়ায় পুরোনো ইট দিয়ে বাজার সেড নির্মাণ নড়াইলে বিলুপ্তির পথে বাবুই পাখির বাসা সাতক্ষীরার তালায় ট্রাক উল্টে ২ শ্রমিক নিহত আহত ১১
ইদুরের আক্রমণে আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতি

ইদুরের আক্রমণে আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতি

ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ মোঃ নাঈম মল্লিক

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার বিভিন্ন এলাকার আমন ধানের খেতে পানি না থাকায় ব্যাপকভাবে আক্রমণ করেছে ইঁদুর এবং অন্য পোকামাকড়। ইঁদুরে কাটার ফলে মুচি ধরা ধানের গাছ চরমভাবে ক্ষতির মুখে পরেছে। উপজেলার অনুরাগ চর,গৌরিপাশা,শংকরপাশা সহ কয়েকটি গ্রামের কৃষকদের সাথে কথা বলে এই খবর পাওয়া গেছে।
গৌরিপাশা এলাকার কৃষক মিলন হাওলাদার বলেন,এবছর এমনিতেই দীর্ঘদিন পানির উচ্চতা বেশি থাকায় কিছু ধানের চারা এমনিতেই পচে নস্ট হয়ে গিয়েছিল। এখন আবার খেতে পানি শুকিয়ে যাওয়ায় ইঁদুর আক্রমণ করেছে, যারফলে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ধানের মুচি আশা চারাও।
শংকরপাশা এলাকার কৃষক ওমর আলী বলেন,আমাদের এই এলাকাতে ইদুরের প্রকপ অত্যাধিক বেশি।ইদুর নিধনে ঔষধ প্রয়োগ করেও কাজ হচ্ছে না।উপজেলা কৃষি দপ্তর থেকেও ইদুর নিধনের সরকারি কোনো সহায়তায় আমাদের কাছে পৌঁছেনি।আমরা দিশেহারা হয়ে পরেছি।
উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি ও নলছিটি পৌরসভার কাউন্সিলর ফিরোজ আলম খান বলেন,আমরা কৃষকদের এই বিপদে তাদের সাথেই আছি।সর্বোচ্চ সহযোগিতার চেষ্টা করব। কিন্তু ইদুর নিধনে সরকারি কোনো বরাদ্দের খবর আমার জানা নেই।
উপজেলার আরেকজন কৃষক নেতা বালী তূর্য বলেন, এমনিতেই আমাদের কৃষকরা বিভিন্ন সময়ে লোকসানের মুখে পরে যাচ্ছেন,তারউপর ইঁদুরের আক্রমণ আরও বেশি ক্ষতি করছে।কৃষির প্রতি এমনিতেই নতুন প্রজন্মের অনিহা বেরেছে,পুরনো কৃষকদের এই লোকসান সামাল দেয়া না গেলে প্রান্তিক পর্যায়ে কৃষি কিছুটা হুমকিতে পড়বে বলে শংকা রয়েছে।এই সময়ে ইদুর নিধনের জন্য সরকারি কোনো বরাদ্দ কিংবা সহায়তা পেলে কৃষকরা খুবই উপকৃত হতো।তাই আমি কৃষি দপ্তরের কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যাতে কৃষকদের এই বিপদে তারা পাসে থাকেন।
নলছিটি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সানজি আরা শাওন বলেন,আমরা কৃষকদের সকল সমস্যায় পাশে আছি।ইদুর নিধনে সেরকম সরকারি কোনো বরাদ্দ না থাকলেও আমরা তাদেরকে যে পরিমান শশ্য নস্ট হয়ে গেছে তা আগামী মৌসুমে তার ঘাটতি কাটিয়ে ওঠার জন্য সহযোগিতা করব।আমরা তাদেরকে বিভিন্ন রকম প্রশিক্ষন দিয়ে ইদুর নিধনের নানাবিধ কৌশল শিখিয়ে দিচ্ছি।
ফসলের এমন ক্ষতির ফলে অর্থনৈতিক ক্ষতির হুমকির মুখে পরেছেন কৃষকরা।ইদুর নিধনে সরকারি সহায়তা কামনা করছেন তারা।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD