May 19, 2024, 2:47 pm

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
সুজানগরে ১৪ বছরের এক কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ পদোন্নতি পেয়ে সিনিয়র সহকারী সচিব হলেন তেঁতুলিয়ার এসিল্যান্ড মাহবুবুল হাসান ঝিনাইদহে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আহত ২১ গোদাগাড়ীতে ডিজিটাল প্রিপেইড মিটার স্থাপন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন উপজেলা চেয়ারম্যান ময়নাকে গণসংবর্ধনা আশুলিয়ায় সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা-কুপিয়ে এক যুবক আহত ও নারীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঝড়-বৃষ্টি আঁধার রাতে, জনগণ আছে শেখ হাসিনার সাথে- প্রতিমন্ত্রী শহীদুজ্জামান সরকার তেঁতুলিয়ায় পুরোনো ইট দিয়ে বাজার সেড নির্মাণ নড়াইলে বিলুপ্তির পথে বাবুই পাখির বাসা সাতক্ষীরার তালায় ট্রাক উল্টে ২ শ্রমিক নিহত আহত ১১
মহেশপুরে ভাগ্নে হ*ত্যার দায়ে মামার ফাঁ*সির আদেশ

মহেশপুরে ভাগ্নে হ*ত্যার দায়ে মামার ফাঁ*সির আদেশ

আতিকুর রহমান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের মহেশপুরে ভাগ্নে হত্যার দায়ে মামা আব্দুল জলিল সরকার নামে এক ব্যক্তির ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে আসামীকে তিন লাখ টাকার জরিমানা করা হয়। সোমবার দুপুরে ঝিনাইদহের বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ নাজিমুদ্দৌলা এই রায় ঘোষনা করেন। দন্ডপ্রাপ্ত আব্দুল জলিল সরকার মহেশপুর উপজেলার ঘুগরি পান্তাপাড়া গ্রামের দেলোয়ার হোসেন ওরফে দলু সরকারের ছেলে। ঘটনার পর থেকেই ঘাতক আব্দুল জলিল পলাতক রয়েছে। ২০১৩ সালের ১০ আগষ্ট রাতে আব্দুল জলিল সরকার তার ভাগ্নে সাইদুর রহমান রানাকে কুপিয়ে হত্যা করে।
মামলায় রায় সুত্রে জানা গেছে, রানার মা শিখা বেগমের সঙ্গে পিতা রইচ উদ্দীনের ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলে রানা তার নানার বাড়িতে বসবাস করতেন। একরণে নানা তার নামে কিছু জমি লিখে দেন। এদিকে ভাগ্নে সাইদুর রহমান রানাকে জমি দেওয়া নিয়ে মামা আব্দুল জলিল সরকার তারা পিতা দেলোয়ার হোসেন দলুকে প্রায় মরধর করতো। ঘটনার দিন রাতেও পিতাকে মারধর করে ভাগ্নে সাইদুর রহমান রানাকে খুজতে থাকে মামা জলিল। এ সময় ভাগ্নে রানা বাজার থেকে নানা বাড়ি ফিরছিলেন। মামা জলিল সরকার কিছু বুঝে ওঠার আগেই রানাকে উপর্যপরী কুপিয়ে আহত করে। প্রতিবেশিরা মুমুর্ষ অবস্থায় রানাকে উদ্ধার করে মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা আশংকা জনক হয়ে পড়লে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে রানার মৃত্যু ঘটে। এ ঘটনায় নিহত’র পিতা শিবানন্দপুর গ্রামের রইচ উদ্দীন বাদী হয়ে শ্যালক আব্দুল জলিল সরকারকে আসামী করে মহেশপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মহেশপুর থানার এসআই রইচ উদ্দীন মামলা তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ২৫ জুলাই আদালতে চার্জসীট দেন। বিজ্ঞ আদালত ১৬জন সাক্ষির সাক্ষ্য গ্রহন শেষে উল্লেখিত রায় ঘোষনা করেন। সরকার পক্ষে পিপি এ্যাডঃ ইসমাইল হোসেন বাদশা ও আসামী পক্ষে স্টেট ডিফেন্স আইনজীবী টিপু সুলতান মামলাটি পরিচালনা করেন। ঘটনার পর থেকেই মামা আব্দুল জলিল সরকার পলাতক রয়েছে। ফলে তার অনুপস্থিতিতে বিচার কাজ সম্পন্ন করা হয়।
ঝিনাইদহে বিএনপি-জামায়াতের ৩১ নেতাকর্মী গ্রেফতার
আতিকুর রহমান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
নাশকতা পরিকল্পনার অভিযোগে ঝিনাইদহে বিএনপি ও জামায়াতের ৩১ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার রাত থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার সুপার আজিম-উল আহসান জানান, হরতাল ও অবরোধকে কেন্দ্র করে নাশকতা বিরোধী অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। মঙ্গলবার বিএনপির দেওয়া অবরোধকে কেন্দ্র করে নাশকতা পরিকল্পনা করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে জেলার ৬ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে অভিযান চালানো হয়। অভিযানকালে ঝিনাইদহ সদর থেকে ৩ জন, কালীঞ্জ থেকে ৯ জন, কোটচাঁদপুর থেকে ৬ জন, মহেশপুর থেকে ৭ জন, শৈলকুপা থেকে ৪ জন ও হরিণাকুন্ডু থেকে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়। গতকাল সোমবার দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। এদিকে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের বাড়িতে বাড়িতে পুলিশী অভিযানের কথা টাইমলাইনে তুলে ধরছেন।

ঝিনাইদহ
আতিকুর রহমান

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD