June 25, 2024, 3:42 pm

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
তেঁতুলিয়ায় হোটেল ভাঙচুর, টাকা লুটপাট গোদাগাড়ীতে আইন শৃঙ্খলাকমিটির সভা অনুষ্ঠিত গোদাগাড়ীতে রিকসা চালককে মধ্যযুগীয় কায়দায় সারা রাত নির্যাতন-প্রধান আসামী গ্রেফতার উত্তরা ব্যাংক মহিশালবাড়ী শাখায় প্রতারণার মাধ্যমে গ্রাহকের লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ তানোরে বিএনপির সংবর্ধনা অনুষ্ঠান পন্ড শোক সংবাদ কুমিল্লায় ট্রেনের ধাক্কায় আওয়ামী লীগের নেতার মৃত্যু মুন্সীগঞ্জে গজারিয়ায় আ”লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৬জন গুলিবিদ্ধসহ আহত ১০ মুন্সীগঞ্জে সিরাজদিখানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে গেল মাহেন্দ্রা ,চালক নিহত গৌরনদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় মাছ ব্যাবসায়ী ও ভ্যান চালকের মৃত্যু
দালাল আ্যম্বুলেন্স চালক সিন্ডিকেটের অনৈতিক দৌরাত্ম; সেবা প্রার্থীদের হয়রানি দিন দিন বেড়ে চলছে

দালাল আ্যম্বুলেন্স চালক সিন্ডিকেটের অনৈতিক দৌরাত্ম; সেবা প্রার্থীদের হয়রানি দিন দিন বেড়ে চলছে

নাজিম উদ্দিন রানা :
লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে দালালদের দৌরাত্ম্য বেড়ে গেছে। এতে প্রতিনিয়ত রোগী ও তাঁদের স্বজনেরা হয়রানি ও লাঞ্চনার শিকার হচ্ছেন। হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারী, অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার, স্থানীয় বেসরকারি ক্লিনিক মালিকেরা এই দালাল চক্র গড়ে তুলেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বিএনপি সরকারের আমলে চাকরি নেয়া একটি চক্র সরকারের দুর্নাম রটাতে জিম্মি করে রেখেছে পুরো ব্যবস্থাপনাকে। তারা কারও নির্দেশও মানছে না। স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সরকার এখানে সবকিছু পূরণ করে দিয়েছে। তবে সিন্ডিকেট সদস্যরা হাসপাতালকে দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত করেছে। অভিযোগ করেছেন অনেকেই।
রোগী ও স্বজনদের অভিযোগ, হাসপাতাল থেকে যে খাবার পরিবেশন করা হয় তা মুখে দেয়া যায় না। বেশির ভাগ রোগীই বাইরের হোটেল অথবা বাড়ি থেকে খাবার এনে ক্ষুধা নিবারণ করছে।
এছাড়া পর্যাপ্ত ঔষধ বরাদ্দ থাকা সত্বেও হাসপাতাল থেকে রোগীদের সরবরাহ না দিয়ে বাইরের ফার্মেসী থেকে কেনার পরামর্শ দেয়া হয়।
এ সুযোগে হাসপাতালের সামনের খাবার দোকান ও ফার্মেসীগুলো রোগীদের সাথে গলাকাটা ব্যাবসা করছে।

জানা যায়, গত মাসে সদর উপজেলা উত্তর টুমচর গ্রামের শহিদ উল্যাহ পেটে ব্যাথা ও শ্বাস কষ্ট নিয়ে সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়। হাসপাতালের সীট খালি দেখে রোগীর স্বজনরা সিটে উঠে। এর কিছুক্ষণ পরই সদর হাসপাতালের এমএলএস ক্যাসিন চাকমা এসেই রোগীকে সিট থেকে বাহিরে ফেলে দেওয়ার হুমকিসহ অশালীন আচরণ করেন। বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীরা জানতে চাইলে তাদের সাথে অসাধাচরণ করে ৪র্থ শ্রেণির এই কর্মচারী। একই দুর্ব্যবহার করা হয় চিকিৎসা নিতে আসা অনেকের সাথেই।

এনিয়ে দু:খ প্রকাশ করেছেন আরএমও ডা: আনোয়ার হোসেন। কিন্তু কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় এধরণের ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে।

বুধবার(১৪ জুন) সকালে সরকারী আ্যাম্বুলেন্স চালক মহিব উল্যা সেবাপ্রার্থী রোগী ও রোগীর লোকজনের সাথে একইভাবে অসদাচরনের পুনরাবৃত্তির ঘটনা ঘটায়। এদিন বিষয়টি নিয়ে হাসপাতালের সামনে দুই পক্ষের উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে আরএমও তা নিরসনে ভূমিকা না রেখে আ্যম্বুলেন্স চালক ও দালালদের উস্কানী দিয়ে সেবাপ্রার্থী রোগীর লোকজনকে আরও নাজেহাল করতে উস্কানী দেয়।
এতে ক্ষোভ ও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে সিভিল সার্জন ডাঃ আহমেদ কবীর বলেন, রোগীদের সাথে দুর্ব্যবহার খুবই দু:খজনক। বৃহস্পতিবার হাসপাতালে অভিযুক্ত দুই কর্মচারীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়েছে। জড়িত থাকার প্রমাণ মিললে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD