April 16, 2024, 7:57 am

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
মুন্সীগঞ্জে বাংলাদেশ সমাচার মু্ন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি ছেলে না ফেরার দেশে চলে গেলেন সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে ২ জন ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল সুজানগর উপজেলা আ.লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব এর পিতার দাফন সম্পন্ন নড়াইলের সুলতান মঞ্চ চত্বরে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে ১৫ দিনব্যাপী সুলতান মেলার উদ্বোধন গোদাগাড়ীতে ট্রাকে টোল আদায়ের নামে চাঁদাবাজি, আটক ২ চড়ক পুঁজা নিয়ে গোলযোগ প্রতিপক্ষের লাঠির আঘাতে যুবক নিহত পাইকগাছায় মটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত ; চালক আহত একজন কিডনি রোগীকে বাঁচানোর জন্য সাহায্যের আবেদন পাইকগাছায় চড়ক পূজা, চৈত্র সংক্রান্তি মেলা ও বৈশাখী উৎসব অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় ঈদে বোয়ালিয়া ব্রীজে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়
টাঙ্গাইলে জমে ওঠেছে ফাইল্যা পাগলার মেলা

টাঙ্গাইলে জমে ওঠেছে ফাইল্যা পাগলার মেলা

হাফিজুর রহমান.টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি:
টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার দাড়িয়াপুর গ্রামে ফাইল্যা পাগলা (ফালুচাঁন শাহ্) এর মাসব্যাপী মেলা জমে ওঠেছে। প্রতিবছর দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে লাখো ভক্ত ও দর্শকের সমাগমে জমে ওঠে এ মেলা।

২০০৩ সালে আকস্মিক বোমা হামলার কারণে কয়েক বছর মেলাটির অচলবস্থার পর ফের অসংখ্য ভক্ত, মানতকারী ও দর্শকদের আনাগোনায় পুনরায় প্রাণ ফিরে পেয়েছে মেলাটি। দুটি বোমা বিস্ফোরণে সাতজন নিহত ও আরো ১০ জন চোখ, হাত ও পা হারিয়ে গুরুতর আহত হয়েছিল।

মেলা উদযাপন কমিটির সূত্রে জানা যায়, গত ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে এ মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে। প্রতিবছর পৌষ মাসের শেষের দিক থেকে শুরু করে পুরো মাঘ মাস ভক্ত ও দর্শকের পদচারণায় মুখর হয়ে থাকে মেলা প্রাঙ্গন।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মানতকারী তাদের মানতকৃত মোরগ, খাঁসি, গরু, ও সিরনিসহ বিভিন্নরকম পণ্য সামগ্রী নিয়ে নেচে নেচে ঢোল পিটিয়ে ‘ হেল ফাইলা- হেল ফাইলা, ফাইলা নাচে না আমি নাচি’ এই শব্দে মুখর করে তোলেন। পুরো মাঘ মাস ব্যাপী এ মেলা চললেও মাঘী পূর্ণিমার দিন এবং এর আগে ও পরের দিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কয়েক লক্ষ ভক্ত ও দর্শকের সমাগম হয়।
মেলা উৎযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার মাস্টার জানান, প্রশাসনের অনুমতিক্রমে মেলা উদযাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ঐতিহ্য ধরে রাখতে আমরা এ মেলার আয়োজন করেছি।

এ বিষয়ে দাড়িয়াপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও মেলা উদযাপন কমিটির সভাপতি শাইফুল ইসলাম বলেন, প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও মাস ব্যাপী মেলা উদযাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা লাখো ভক্ত ও দর্শকরা যাতে নির্বিঘেœ মেলা উদযাপন করতে পারে এজন্য মেলা কমিটি ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছেন।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম বলেন, মেলার দিনগুলো নিরাপত্তার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে । এ বছরও মেলা সুষ্ঠুভাবে উদযাপিত হবে বলে আশা করছি।

উপজলো নির্বাহী অফিসার প্রকৌশলী ফারজানা আলম বলেন, মেলা নিয়ে এখনোও কোন বিধি নিষেধ নেই। মেলায় শাস্তি যোগ্য এমন কোন বেআইনি কাজ করলে বা অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD