April 24, 2024, 2:16 am

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
কেশবপুরে বিএনপি নেতা পৌর কাউন্সিলর ব্যক্তিগত উদ্যোগে ৪ হাজার পিচ স্যালাইন বিতরণ কেশবপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্ধ,কে কোন প্রতীক পেল তানোরে ময়নার স্মরণকালের সর্ববৃহত শোডাউন গোদাগাড়ীতে সাড়ে ৬ কেজি হেরোইনসহ মাদক সম্রাট ঝাবু গ্রেফতার পাইকগাছায় ৬ কিলোমিটার সড়ক বদলে দিয়েছে লতা ইউনিয়নের যোগাযোগ ব্যবস্থা তীব্র তাপদাহে স্বরূপকাঠির জন জীবন অতীষ্ট বেড়েছে ডায়রিয়ার প্রকোপ শয্যা সংকটে মেজেতে বসে চিকিৎসা নিচ্ছেন রোগিরা সাভারের রানা প্লাজা ট্রাজেডির সেই ভয়াবহ দিবসটি হাজারো মানুষের মৃত্যুর ইতিহাস হাতীবান্ধায় ইস্তিসকার নামাজ আদায় বৃষ্টির আশায়  ভাবখালী আউলিয়ার বাজারের জলাবদ্ধতা নিরসনে আরসিসি ড্রেন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন মুন্সীগঞ্জে টঙ্গীবাড়ী উপজেলায় দুই চেয়ারম্যান এবং দুই ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র অবৈধ
স্বরূপকাঠিতে বোরখা পড়া ও ধর্ম নিয়ে কটুক্তি স্কুল শিক্ষিকা সাময়িক বরখাস্ত

স্বরূপকাঠিতে বোরখা পড়া ও ধর্ম নিয়ে কটুক্তি স্কুল শিক্ষিকা সাময়িক বরখাস্ত

Exif_JPEG_420

আনোয়ার হোসেন।
স্বরূপকাঠি (পিরোজপুর) প্রতিনিধি,

শ্রেনি কক্ষে বোরখা পড়া ও ধর্ম নিয়ে কটুক্তি করায় স্বরূপকাঠি উপজেলার
কামারকাঠি বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা কাকলী রানী মিস্ত্রীকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি। বিদ্যালয়ের
প্রধান শিক্ষক সুনীল বরণ হালদার বিষয়টির সতত্যা নিশ্চিত করে বলেন শিক্ষিকা দোষ স্বীকার করেছেন এবং মঙ্গলবার বিকেলে ম্যানেজিং কমিটির সভার সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
জানাযায়,শিক্ষিকা কাকলী বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির সামাজিক সমস্যা ও প্রতিকার বিষয় পড়ানের সময় মুসলমান মেয়েদের বোরখা পড়া এবং ইসলাম ধর্ম নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন। ছাত্রীরা বিষয়টি বাড়িতে গিয়ে জানালে অভিভাবকদের মাঝে ক্ষোভের
সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দিলে রাজনৈতিক নেতৃত্ব ও
প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলা
চেয়ারম্যান আব্দুল হক,উপজেলা নির্বাহী কর্মকমর্তা মো.মোশারেফ
হোসেন,পৌর মেয়র মো.গোলাম কবির ও ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন, ইউপি
চেয়ারম্যান তৌহিদুল ইসলাম ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষক মন্ডলী এবং ছাত্রী অভিভাবকসহ
এলাকাবাসীর সাথে বৈঠক করে তদন্ত পূর্বক শাস্তির ব্যবস্থা করার আশ্বাস দিয়ে
সবাইকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেন। তবে ওই শিক্ষিকা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না।
এরপর কমিটি সভা করে ওই শিক্ষকা কাকলী রানী মিস্ত্রিকে সাময়িক বরখাস্ত করে।
ঘটনার বিষয় ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, কারো ধর্ম নিয়ে অযথা
সমালোচনা করা উচিত নয় এবং ধর্ম নিয়ে কাউকে বিশৃঙ্খলা সৃস্টি করতেও দেয়া
হবে না। দেশের প্রচলিত আইন মেনে সবাইকে চলতে হবে। পৗর মেয়র বলেন ঘটনা
ছোট বড় যাই হোক, যে কেউ ঘটাক তার বিচার হচ্ছে ও হবে। উপজেলা নির্বাহী
অফিসার মো.মোশারেফ হোসেন বলেন, বিচার চাইতে গিয়ে উত্তেজনা সৃস্টি
করা যাবে না। উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হক বলেন, ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করা
কারো জন্য মঙ্গল নয়। ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।
শিক্ষিকা কাকলী রানীর ফোন বন্ধ থাকায় তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।###

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD