February 27, 2024, 12:45 pm

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
আশুলিয়ায় ডিবি পুলিশ কর্তৃক ৬জন ডাকাত গ্রেফতারের পর রিমান্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য স্বাধীন ও সার্বভৌম প্রজাতন্ত্রে জনগণের বন্ধু পুলিশ ও সাংবাদিকের দায়িত্ব কি?-বাকিটা ইতিহাস গোদাগাড়ীতে হেরোইনসহ নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার ভিজিডির তালিকায় নাম একজনের, চাল খায় আরেকজন পাইকগাছা প্রেসক্লাবে পাল্টা পাল্টি সংবাদ সম্মেলন পাইকগাছায় স্বাভাবিক প্রসব সেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে কপিলমুনি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র বেড়িবাঁধ নির্মাণ; জলাবদ্ধতার আশংকা নড়াইলের আদালত থেকে শর্তে জামিন পেলেন সেই প্রধান শিক্ষক এস এম মুরাদুজ্জামান সুন্দরগঞ্জে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উদযাপন বেতাগীতে স্থানীয় সরকার দিবসে শোভা যাত্রা, আলোচনা ও পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান
পানছড়ি বাজার থেকে ছনটিলা যাওয়ার একমাত্র রাস্তাটি বেহাল অবস্থায়,ভোগান্তি সাত গ্রামের মানুষ

পানছড়ি বাজার থেকে ছনটিলা যাওয়ার একমাত্র রাস্তাটি বেহাল অবস্থায়,ভোগান্তি সাত গ্রামের মানুষ

মিঠুন সাহা, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলার ৩ নং সদর ইউনিয়নের দমদম হতে ছনটিলা এলাকার জনগণ অবহেলিত হয়ে আছে বছরের পর বছর ধরে। পানছড়ি বাজার থেকে ছনটিলায় এই সড়কটিতে উন্নয়নের কোনো ছোঁয়ায় লাগেনি বলে জানা যায় জনগণের কাছ থেকে।এই সড়কের বেহাল দশা নিয়ে নানা সময় ইউনিয়ন পরিষদ,উপজেলা প্রশাসনসহ জেলার সংসদ সদস্য পর্যন্ত অবহিত করা হয়েছিল। বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় নিউজ করা হয়েছিল কিন্তু এই রাস্তার উন্নয়নে কেউ এগিয়ে আসেনি।

এলাকাটিতে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় ৭ কিলোমিটারের সড়কটির বিভিন্ন স্থানে ভাঙা ও গর্তে ভরা। এই গর্তের কারণে বর্ষাকালে জনগণকে আরও চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়।এতে স্কুল গামী শিক্ষার্থী,কোনো জরুরী অবস্থায় রোগীকে হাসপাতাল পর্যন্ত পৌছানো সম্ভব হয়না।

এইছাড়াও রাস্তা ভাঙা ও বেহাল অবস্থার কারণে সিএনজি ও মোটরসাইকেল ব্যতীত অন্য কোন যানবাহন চলাচল করে না।ফলে অধিক ভাড়া দিয়ে এই এলাকার জনগণকে পানছড়ি বাজারে আসতে হয়।।সিএনজি দিয়ে ছনটিলা থেকে পানছড়ি বাজারে আসতে একেক জন লোকের আসা যাওয়া ১০০ টাকা খরচ হয়ে যায়।আর মোটরসাইকেলে যায় জনপ্রতি ২৪০ টাকা।

এর ফলে দরিদ্র পরিবারের লোকজনকে অতিকষ্টে দিনযাপন করতে হয়।আর তাছাড়া এই এলাকার লোকজন কৃষি নির্ভর। এখানকার বেশিরভাগ মানুষ কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে।কৃষি কাজের বিভিন্ন পণ্য বাজারে নিয়ে আসা পর্যন্ত একজন কৃষকের অনেক টাকা খরচ হয়।ফলে পর্যাপ্ত পরিমাণে লাভের মুখ দেখেনা কৃষক।

স্থানীয় সূত্রে আরও জানা যায়,এখানে দমদম হতে ছনটিলা পর্যন্ত সাতটি গ্রামের দশ হাজার লোকের বসবাস রয়েছে।জীবিকার প্রয়োজনে প্রতিদিন গড়ে দুই তিন হাজার লোককে পানছড়ি বাজারে আসা যাওয়া করতে হয় এই সড়কটি দিয়ে।

স্থানীয় জনগণের দাবী খুব দ্রুত সময় এর মধ্যে সড়কটি ঠিক করে জনগণের চলাচলের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য সরকার ও কর্তৃপক্ষের নিকট দাবী জানান।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD