বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৫১ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম:
পঞ্চগড়ের ক্ষণজন্মা নেতা নাজিম জাসদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নিরহঙ্কারী ২৯ নভেম্বর পঞ্চগড় মুক্তি দিবস পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় নিয়োগ বাণিজ্য- মাদ্রাসা’র অফিসে ভুক্তভোগীর তালা নড়াইলের কালিয়া ডাকবাংলো উদয়-রবির পৈত্রিক বাড়ি ঝিনাইদহ আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্যানেল থেকে সভাপতি সম্পাদকসহ সাত পদে জয়ী বানারীপাড়ায় বিলুপ্তির পথে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য কাচারী ঘর সুনামগঞ্জে নারীদের মাঝে ১০টি সেলাই মেশিন নগদ অর্থ বিতরণ করেন শ্রমিকলীগ সভাপতি সেলিম আহমদ কালের পরিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে কেরোসিনের কুপি হাসপাতালে মায়ের মৃত্যু,বুকে পাথর চেপে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া সেই সুমাইয়া পাশ করেছে পানছড়িতে এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত ১২ জন জিপিএ ৫ পেয়েছে,শতকরা পাশের হার ৭০.৬৬% পটিয়ায় এবার কৃষকের পাশে দাঁড়ালেন নজির আহমেদ ফাউন্ডেশন
কাজী নজরুল ইসলাম এর মৃত্যুবার্ষিকীতে খাগড়াছড়িতে ছিলো না কোনো আয়োজন

কাজী নজরুল ইসলাম এর মৃত্যুবার্ষিকীতে খাগড়াছড়িতে ছিলো না কোনো আয়োজন

মিঠুন সাহা, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি।

খাগড়াছড়ি জেলাসহ উপজেলাগুলোতে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম এর মৃত্যু বার্ষিকীকে কোন আয়োজনই শিল্পকলা একাডেমির পক্ষ থেকে করা হয়নি।

দ্রোহ,প্রেম ও মানবতার কবি জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী ছিল গতকাল ২৯ আগষ্ট। আর এই দিনটিকে নিয়ে কবির স্মরণে এই খাগড়াছড়ি জেলা উপজেলায় কোন আয়োজনই হয়নি ?? এই প্রজন্মরা কাদের প্রেরণা নিয়ে বড় হয়ে উঠবে?? সপ্তাহ খানেক পূর্বে পানছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবাইয়া আফরোজকে এই বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করার পরও তিনি এই বিষয়ে কোন গুরুত্বই দেননি।তাহলে জেলা উপজেলা প্রশাসনের অধীনে শিল্পকলা একাডেমি সৃষ্টির উদ্দেশ্যে কি????

এই সকল কবি মহাকবিদের যদি স্মরণ ও চর্চা নাই করা হয়,তাদের মূল্যায়ন না করা হয় তাহলে কিভাবে সভ্যতা এগিয়ে যাবে?? বাংলাদেশের অনেক জেলা উপজেলায় এই দিনটিকে যথাযথ মর্যাদায় পালন করতে দেখা গেছে। সেখানে খাগড়াছড়ি জেলায় এর কোন উদ্যোগও নেই।আর বরাবরই খাগড়াছড়ির জেলায় এই কালচারাল সেক্টরটার প্রতি প্রশাসকের অবহেলায় বিদ্যমান রয়েছে।

এই কবি ও মহা কবিদের অবহেলা ও অসম্মান এর পেছনে কি অযোগ্য নেতৃত্ব কিংবা অনবিজ্ঞ ব্যক্তিকে দায়িত্বে বসানোর সামিল নয়?এই সভ্যতা ও সমাজকে এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে সব অবস্থান থেকে প্রতিবাদ গড়ে উঠা অত্যন্ত জরুরী।না হলে আগামীর সমাজ কখনো সুন্দর ও সুশৃঙ্খল হিসেবে গড়ে উঠবে না।

আর এইদিকে এই নিয়ে শিল্পীসমাজে নেমে এসেছে হতাশা।পানছড়ি উপজেলার স্বনামধন্য শিল্পী ও সঙ্গীত শিক্ষক থোয়াই অঙ্গ চৌধুরী এই নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন যে সমাজে রবীন্দ্র- নজরুল চর্চা হয়না।সে সমাজে আদর্শবান ও ভালো ব্যক্তি উঠে আসবে কিভাবে তা প্রশ্ন থেকে যায়।

এইছাড়াও পানছড়ি উপজেলার ৪ নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার মতিউর রহমান বলেন: সবাই যার যার ধান্দায় ঘুরে,সংস্কৃতির দিকে মন নেই। এজন্যইতো সামাজিক অবক্ষয় বেড়ে গেছে। বর্তমানে কারো আদর্শ কেউ ধারণ করেনা,নিজেকে জাহির করতে ব্যস্ত।আসুন আমরা যারা একটু আধটু বুঝি যার যার অবস্থান থেকে চেষ্টা চালিয়ে যায়।তাহলে সমাজ ঘুরে দাঁড়াবে।

পানছড়ি উপজেলা আরেক সাহিত্য অনুরাগী অরুণ শীল বলেন:যেখানে কবি রবীন্দ্র,নজরুল, চর্চা হবে না সেখানে ভাল কিছু আশা করা যায় না।

বাংলাদেশ টেলিভিশন ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার একজন স্বনামধন্য শিল্পী আবুল কাশেম বলেন: এই পার্বত্য খাগড়াছড়িতে সঙ্গীত চর্চা তেমন ভাবে হচ্ছে না।তাও কোনো রকম ভাবে চলে ঢিলে ঢালা ভাবে।সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা ও কর্মসূচি নেই।এটা সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য অশনিসংকেত।যা থেকে উত্তোরনের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা খুবই জরুরী।এখন যেভাবে বাচ্চারা মোবাইলের দিকে ধাবিত হচ্ছে এটাও সঠিক সাংস্কৃতিক চর্চার অভাবের কারণে।

খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ও জেলা সাহিত্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ আদনান বলেন: সাংস্কৃতিক অঙ্গন গতিশীল না হলে আমাদের তরুণ প্রজন্ম অপসংস্কৃতিমুখী হবে যার ফলে অপূরণীয় ক্ষতি হবে।’

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD