সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম:
পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে বারান্দায় শিশু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে স্ট্যাম্প উদ্ধারের মামলায় আদালত কর্তৃক ৯ বিবাদীদের কে শোকজ বানারীপাড়ায় শিক্ষক ও সুপারভাইজরদের ১২ দিন ব্যাপী বুনিয়াদী প্রশিক্ষণের উদ্বোধন ময়মনসিংহে শীতার্ত মানুষের মাঝে চিকিৎসক নেতা ডাঃ এম এ আজিজ এর কম্বল বিতরণ পাইকগাছায় গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার পাইকগাছা উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস পালিত বেপরোয়া বাস-বাড়ছে সড়ক দুর্ঘটনা: নামে বে-নামে কোটি কোটি টাকা চাঁদাবাজি আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে সুজানগরের প্রতিবন্ধীদের মাঝে সুদমুক্ত ঋণ বিতরণ সাভারের ইয়ারপুর ইউনিয়ন উপ-নির্বাচনে ১৩জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল: ২জন মাঠে সক্রিয়
নাগেশ্বরীতে পরিত্যক্ত স্কুলের বারান্দায় পাঠদান

নাগেশ্বরীতে পরিত্যক্ত স্কুলের বারান্দায় পাঠদান

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের সিন্দুরমতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ভবনের বারান্দায় চলছে শিশু শিক্ষার্থীদের পাঠদান। ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে ছেলে-মেয়েদের পাঠিয়ে অভিভাবকরা রয়েছে আতঙ্কে। ভবনটি ধসে পড়ে যেকোনো সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার রামখানা ইউনিয়নের সিন্দুরমতি গ্রামের আব্দুল লতিফ প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক হয়ে তার পৈতৃক সম্পত্তিতে সালে স্থাপিত করে সিন্দুরমতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এলজিইডির আওতায় সালে ৩কক্ষের নির্মিত ঘর লবণাক্ততায় পলেস্তারা খসে পড়ছে ও দেয়াল মেঝে ফাটলসহ বিভিন্ন অংশে ফাটলের তথ্য পেয়ে এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী গত মে মাসে বিদ্যালয় পরিদর্শনে গিয়ে ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করার পরেও ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের বারান্দায় দুই শিফটে চলছে ১ম থেকে ৫ম শ্রেণির শিশু শিক্ষার্থীদের রোদ-বৃষ্টি ও তাপদাহে পাঠদান।

প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা সৃষ্টিলগ্ন থেকে যথাবিথি মফস্বল অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের মান উন্নয়ন ও বিকাশ প্রসারে পাঠদান করে আসছে এবং ফলাফলও করছে সর্বোচ্চ রেকর্ড। স্কুলে শিক্ষক জন ও শিক্ষার্থী জন। এলজিইডির নাগেশ্বরী উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তর থেকে দ্বিতল ভবনের টেন্ডার সম্পন্ন হলেও ভবন নির্মাণ কাজ এখনও শুরু হয়নি।

শিক্ষার্থীরা জানান, আমাদের স্কুলে পাঠিয়ে দিয়ে প্রতিদিন পিতা-মাতাকে থাকতে হয় দুশ্চিন্তায়। সহপাঠীরা অনেকেই ক্লাসে আসছে না। আমাদের নতুন ভবন হলে নিরাপদে লেখাপড়া করতে পারবো।

সহকারী শিক্ষকরা জানান, শ্রেণিকক্ষে পাঠদানকারী সহকারী শিক্ষক বলেন, প্রতিষ্ঠান ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ার পরেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অতি কষ্টে শিশু ছেলে মেয়েদের পাঠদান করাচ্ছি।

সিন্দুরমতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল লতিফজানান, বিদ্যালয়টি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হলেও ছাত্র-ছাত্রীদের শ্রেণিকক্ষের পাঠদানে বিকল্প কোনো ব্যবস্থা না থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের বারান্দায় ক্লাস নিতে হচ্ছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

নাগেশ্বরী উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী ওয়াসিম আতহার বলেন, বিদ্যালয়টি পরিদর্শনে গিয়ে ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছে এবং ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে শিশু শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে। স্কুলের দ্বিতল ভবনের টেন্ডার সম্পন্ন আগামী এক মাসের মধ্যে ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD