শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:১৫ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম:
দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় পাহাড়ে শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নে ভূমি সমস্যা সমাধান দরকার প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে পটিয়ায় কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতার নেতৃত্বে আনন্দ শোভাযাত্রা পলোগ্রাউন্ড মাঠে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফল করতে পটিয়ায় ছাএলীগের প্রস্তুতি সভা হবিগঞ্জে ধর্ষণের দায়ে দুই জনের মৃত্যুদন্ড শেখ হাসিনাকে বরণ করতে চট্টগ্রামবাসী প্রস্তুতঃ বদিউল আলম ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে জায়গা জমির জের ধরে ৮০ বছরের বৃদ্ধকে হত্যা ক্ষেতলালে ৬ বছরের শিশু ধর্ষণ চেষ্টায় ফেরিওয়ালা গ্রেফতার মোংলা পোর্ট পৌরসভার ৪৭ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত বনার্ঢ্য আয়োজনে নিসচা টঙ্গীবাড়ী উপজেলা শাখার ২৯ তম প্রতিষ্টা বাষিকী পালিত
নড়াইলে কলেজ অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে অপদস্থ করার ঘটনায় গ্রেপ্তার নূর–নবী

নড়াইলে কলেজ অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে অপদস্থ করার ঘটনায় গ্রেপ্তার নূর–নবী

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল থেকে:

নড়াইলে কলেজ অধ্যক্ষকে অপদস্থ করার ঘটনায় নূর–নবী গ্রেফতার। নড়াইল সদর উপজেলার মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় অপর এক তরুণ গ্রেপ্তার হয়েছেন। গতকাল রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে যশোরের মনিহার সিনেমা হলের সামনে থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
গ্রেপ্তার নূর-নবী (৩৭) নড়াইল সদর উপজেলার কলোড়া ইউনিয়নের গোবরা গ্রামের মৃত ফয়েজ চৌকিদারের ছেলে। তিনি ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালান। গতকাল রাতেই তাঁকে সদর থানায় নেওয়া হয়।
পুলিশ জানায়, ঘটনার দিন নূর-নবী খুবই বেপরোয়া ছিলেন। তাঁকে সামাল দেওয়া কঠিন হচ্ছিল। এ নিয়ে ওই ঘটনায় পাঁচজন গ্রেপ্তার হলেন। এর আগে পুলিশ চারজনকে গ্রেপ্তার করে। তাঁরা হলেন নড়াইল সদর উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মনিরুল ইসলাম ওরফে রুবেল (২৭), ব্যবসায়ী মো. শাওন খান (২৮) ও ইজিবাইকচালক সৈয়দ রিমন আলী (২২) এবং খুলনার সরকারি বিএল কলেজে স্নাতক (সম্মান) শেষ বর্ষের ছাত্র রহমতুল্লাহ বিশ্বাস (২৪)। তাঁদের মধ্যে প্রথম তিনজনের বাড়ি সদর উপজেলার মির্জাপুর গ্রামে। আর রহমতুল্লাহের বাড়ি রুখালি গ্রামে।
পুলিশ আরও জানায়, আগে গ্রেপ্তার হওয়া ওই চার আসামির প্রত্যেকের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ সোমবার তাঁদের রিমান্ড শুরু হবে। ওই ঘটনায় ২৭ জুন পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ১৭০ থেকে ১৮০ জনের নামে মামলা করে।
রোববার রাতে নূর-নবীকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মাহামুদুর রহমান সোমবার সকাল ১০টায় জানান, তাঁকে কিছুক্ষণের মধ্যে আদালতে নেওয়া হবে।
প্রসঙ্গত, গত ১৭ জুন ওই কলেজের একাদশ শ্রেণির এক শিক্ষার্থী নিজের ফেসবুকে ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল বিজেপির বহিষ্কৃত মুখপাত্র নূপুর শর্মাকে প্রণাম জানিয়ে ছবিসহ একটি পোস্ট দেন।
এ নিয়ে উত্তেজনা তৈরি হলে ১৮ জুন অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাস কলেজশিক্ষক, ওই শিক্ষার্থীর বাবা ও কলেজ পরিচালনা পরিষদের কয়েক সদস্যকে ডেকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন। আলোচনায় নেওয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, কলেজ ক্যাম্পাসে পুলিশ ডেকে শিক্ষার্থীকে তাদের কাছে সোপর্দ করা হয়। পুলিশ সদস্যরা ওই শিক্ষার্থীকে ক্যাম্পাস থেকে নিয়ে যেতে চাইলে উত্তেজিত ছাত্র ও বহিরাগত কয়েকজন বাধা দেন। তখন জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে বিষয়টি জানানো হয়।
বিকেল চারটার দিকে শিক্ষক স্বপন কুমার বিশ্বাস ও ওই শিক্ষার্থীকে কলেজের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষ থেকে বের করা হয়। নিচতলার কলাপসিবল গেটের সামনে আনার পর তাঁদের গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেওয়া হয়।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD