July 17, 2024, 11:26 am

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
নড়াইলের মধুমতি নদী থেকে গ*লিত ম*রদেহ উদ্ধার ৬ মিনিটেই মিলছে নির্ভুল জন্ম নিবন্ধন সনদ চারঘাটে গরুর লাম্পি স্কিন ডিজিজ রোগের প্রাদু*র্ভাব বানারীপাড়ায় বিশারকান্দিতে ৫০ বছর ধরে ভাসমান সবজি চাষে সফল চাষীরা আশুলিয়ায় তিতাস গ্যাসের ৫ শতাধিক বাসা বাড়ির অ*বৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন টুরিস্ট পুলিশ ঢাকা রিজিয়ন এবং টুর অপারেটর এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ এর মত বিনিময় গোদাগাড়ীতে গবাদিপশুর ল্যাম্পি স্কিন ডিজিজ সম্পর্কে উঠান বৈঠক, মেডিকেল ক্যাম্প পরিচালিত পাইকগাছায় বিপুল পরিমাণ কারেন্ট জাল জ*ব্দ পাইকগাছায় পানিতে ডু*বে শিশুর মৃ*ত্যু জাতীয় নৃত্য প্রতিযোগিতায় ঝালকাঠির মেয়ে সুকন্যার স্বর্ণপদক জয়
জয়পুরহাটে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক বিজিবি সদস্য নিহত

জয়পুরহাটে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক বিজিবি সদস্য নিহত

স্টাফ রিপোর্টারঃ- নিরেন দাস

জয়পুরহাটে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (২০-বিজিবি) ক্যাম্পের সিপাহী নেপাল দাস (৩১) নামের এক সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন বলে জয়পুরহাট আধুনিক হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তাকে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হয়। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৮ টায় তার লাশ বিজিবি ক্যাম্পে নেওয়া হয়।

নিহত বিজিপি সদস্য হলেন,নেপাল দাস ফরিদপুর জেলার মধুখালী উপজেলার মেঘচামী এলাকায় নারায়ণ দাসের ছেলে। সে ২০-বিজিবি জয়পুরহাট ব্যাটালিয়নে সিপাহী পদে কর্মরত ছিলেন বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে। তবে এখন পর্যন্ত সিপাহী হযরত এর পরিচয় পাওয়া যায়নি।

ঘটনার সুত্র জানা যায়,বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিএম স্কুল ২০ বিজিবির বিশেষ ক্যাম্প এর ভিতরে সিপাহী হযরত এর গুলিতে আহত নেপাল দাস নামক একজন সিপাহীকে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত.ঘোষণা করেন। এবং রাতেই লাশটি ময়নাতদন্ত করা হয়। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে লাশ বিজিবি ক্যাম্পে হাসপাতাল থেকে নেওয়া হয়।

বিষয়টি জানান জন্য জয়পুরহাট-২০ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল রফিকুল ইসলামের সাথে গণমাধ্যম কর্মীরা একাধিক বার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ সরদার রাশেদ মোবারক বলেন, নিহতের শরীরে বন্দুকের গুলির ক্ষত রয়েছে। পিঠে, বুকে ও ডান হাতে ক্ষতের চিহ্ন আছে। এটি দেখে মনে হয়ে পিট দিয়ে গুলি ঢুকে বুক দিয়ে বের হয়ে গেছে। তাছাড়াও ময়নাতদন্তের রিপোর্টের পর বিষয়টি আরও পরিস্কার বলা যাবে বলেও তিনি বলেন।

এদিকে জয়পুরহাট সদর থানার পরির্দশক গোলাম সারোয়ার হোসেন জানান, এঘটনায় শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) সকালে জয়পুরহাট থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD