July 17, 2024, 10:31 am

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
নড়াইলের মধুমতি নদী থেকে গ*লিত ম*রদেহ উদ্ধার ৬ মিনিটেই মিলছে নির্ভুল জন্ম নিবন্ধন সনদ চারঘাটে গরুর লাম্পি স্কিন ডিজিজ রোগের প্রাদু*র্ভাব বানারীপাড়ায় বিশারকান্দিতে ৫০ বছর ধরে ভাসমান সবজি চাষে সফল চাষীরা আশুলিয়ায় তিতাস গ্যাসের ৫ শতাধিক বাসা বাড়ির অ*বৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন টুরিস্ট পুলিশ ঢাকা রিজিয়ন এবং টুর অপারেটর এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ এর মত বিনিময় গোদাগাড়ীতে গবাদিপশুর ল্যাম্পি স্কিন ডিজিজ সম্পর্কে উঠান বৈঠক, মেডিকেল ক্যাম্প পরিচালিত পাইকগাছায় বিপুল পরিমাণ কারেন্ট জাল জ*ব্দ পাইকগাছায় পানিতে ডু*বে শিশুর মৃ*ত্যু জাতীয় নৃত্য প্রতিযোগিতায় ঝালকাঠির মেয়ে সুকন্যার স্বর্ণপদক জয়
পানছড়িতে পাকা ধান ঘরে তোলার প্রস্তুতি চলছে

পানছড়িতে পাকা ধান ঘরে তোলার প্রস্তুতি চলছে

মিঠুন সাহা,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

কার্তিকের শেষ হতেই মাঠগুলো ছেয়ে গেছে পাকা ধানে। শুরু হয়েছে কৃষকের ঘরে ধান উঠানোর প্রস্তুতি। অন্যবারের চেয়ে এবারও রেকর্ড পরিমাণ আমন ধানের ফলন হওয়ায় জেলার পানছড়ির কৃষকেরা আগে বাগেই ধান কাটা শুরু করেছেন আবার অনেকেই ধান কাটার প্রস্তুতিও নিচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানতে চাইলে সহকারি কৃষি কর্মকর্তা অরুনাঙ্কর চাকমা জানান , গতবারের চেয়ে এবছর আমন ধানের চাষ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি হয়েছে। এবার উপজেলায় আউস ধানে ৭৬৫ হেক্টর ও আমন ধানে ৩৭৯৫ হেক্টর জমিতে চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছিলো। উফশি জাতের আমন ধানে ৩৬৩৫হেক্টর ও স্থানীয় বিনি,কালোজিরা , ছক্কা পান্জা ১৬০ হেক্টর সহ মোট ৩৭৯৫ হেক্টর জমিতে ফসল উৎপাদিত হয়েছে । তবে সাম্ভাব্য হেক্টর প্রতি গড়ে উৎপাদিত ৫ দশমিক ৫ মেট্রিক টন হারে মোট ২০ হাজার ৮ শত ৭৩ মেট্রিক টন ধান উৎপাদিত হবে আশা করা যায়।

উপজেলার নালকাটা,ঝাগুরনালা, শান্তিপুর, লতিবান, মন্জ আদাম, মির্জাবিল, পুজগাং, চেঙ্গী ,লোগাং , সুতকর্মা পাড়া , চৌধুরী পাড়া সহ বেশ কিছু গ্রামে গিয়ে দেখা যায় কৃষকেরা ধান কাটছেন ও অনেকেই কাটার প্রস্তুতি শুরু করেছেন। ধান কাটছেন মির্জাবিলের স্বর্ণা চাকমা । তিনি জানান, আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এবার ফলন ভালো পেয়েছি। তবে সঠিক দামে বিক্রি করতে না পারলে ঘাটতি থাকবে।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD