শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৯:১৪ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম:
পঞ্চগড়ে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে এক কৃষকের মৃত্যু শাহীনুজ্জামানের হাত ধরে সুজানগরে বিএনপির ৪ শতাধিক নেতাকর্মীর আ.লীগে যোগদান মধ্যরাত থেকে ইলিশ শিকার নিষিদ্ধ, জেলে পল্লীতে হাহাকার পাইকগাছায় জাতীয় জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন দিবসের আলোচনা সভা পাইকগাছায় বিদ্যুতায়িত হয়ে দোকানদারের মৃত্যু নওগাঁর আত্রাইয়ে জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা সুজানগর পৌরসভার উদ্যোগে জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস পালিত জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনে জেলার সেরা সুজানগর পৌরসভা স্বরূপকাঠির সম্ভাবনাময় জাহাজ শিল্প পাইকগাছায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক প্রদত্ত মানবিক সহায়তা চেক বিতরণ
তেঁতুলিয়ায় ষাট বছরের ক্রয়কৃত মালিকের জমি জবর দখলের পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে

তেঁতুলিয়ায় ষাট বছরের ক্রয়কৃত মালিকের জমি জবর দখলের পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে

তরিকুল ইসলাম।
তেঁতুলিয়া (পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ষাট বছর আগের ক্রয়কৃত মালিকের জমি প্রভাবশালী চক্র জবর দখলের পাঁয়তারায় লিপ্ত রয়েছেন অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালত, তেঁতুলিয়া পঞ্চগড়ে চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। যা গত জুলাই মাসের ২৫ তারিখের মামলা নং- ৬৫/২০২২ অন্য। উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়নের ভুতিপুকুর গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে আজিজুল হক, একই গ্রামের আজিজুল হকের স্ত্রী নুরজাহান বেগম ও আজিজুল হকের ছেলে আব্দুর রউফ বাদী হয়ে টাঙ্গাইল জেলার ভুয়াপুর উপজেলার নিকলা ইউনিয়নের আলোয়া গ্রামের মৃত মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে মোজাম্মেল হক ও তার স্ত্রী কানুন বেগম, সদর সিরাজগঞ্জ জেলার হুসেনপুর গ্রামের সোহেল ইবনে হামিদের স্ত্রী শাহিনুর পারভীন(মুন), তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়নের ভজনপুর গ্রামের মৃত হাসেম আলীর ছেলে লুৎফর রহমান ও শাহজাহান খাঁন এবং উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রারকে বিবাদী করে এই মামলাটি বিজ্ঞ আদালতে আনয়ন করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, পঞ্চগড় তেঁতুলিয়া উপজেলার প্রধানগছ মৌজার জে.এল.নং-২০ এর সাবেক ১৪৫ নং খতিয়ানের এস.এ ৩১১ নং খতিয়ান ভুক্ত এস.এ ১৩২ নং দাগে ৯ দশমিক ৪৩ একর জমিসহ ১৭ দশমিক ৭৪ একর জমির একটি হোল্ডিং বিদ্যমান আছেন। এতে খতিয়ানের মূল রেকর্ডীয় মালিকসহ অপরাপর ওয়ারিশগণের কাছ থেকে ১৯৬১, ১৯৬৫, ১৯৬৬, ১৯৬৭, ১৯৮১, ১৯৯০, ১৯৯৩ ও ২০০১ সালে বাদী আজিজুল হক ও তার স্ত্রী এবং পুত্র আব্দুর রউফ ৯ দশমিক ৪৩ একর জমির মধ্যে ১ দশমিক ২০ একর জমি ক্রয়সূত্রে মালিক প্রাপ্ত হোন। এই জমিতে বাদীরা তাদের চা বাগান পরিচর্যা করতে থাকলে গত বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) বিবাদীরা চা বাগান পরিচর্যা করলে বিবাদীরা বাধা নিষেধসহ বিভিন্ন জন বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও হুমকির কথা বলেন।

এ ব্যাপারে আজিজুল হক বলেন, তিনি রেকর্ডীয় মূল মালিকদের কাছ থেকে ক্রয় করে প্রায় ৫০ থেকে ৬০ যাবৎ ভোগদখল করে আসছেন। কিছু অসাধু লোক জমির মূল্য দেখে লোভ সামলাতে না পেরে, বিনা কাগজে আমার ক্রয়কৃত সম্পত্তিসহ ষোল আনায় জবর দখলকারী লুৎফর রহমান ও তার ভাই শাহজাহান খাঁনের নিকট বায়নানামা করেন। বায়নানামা সূত্রে লুৎফর ও শাহজাহান তার ভোগদখলীয় ১ দশমিক ২০ একর জমি জবর দখরের পাঁয়তারা করছেন। তিনি আরোও জানান, যে কোন সময় বিবাদী মোজাম্মেল হক, কানুন বেগম ও শাহিনুর পারভীন(মুন) এর কাছ থেকে অপরাপর বিবাদী লুৎফর ও শাহজাহান তেঁতুলিয়া সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে দলিল সৃজন করে জমিতে সন্ত্রাসী বাহিনী নামিয়ে জমিটি জবর দখল করতে পারেন। তাই তিনি সহকারী জজ আদালত, তেঁতুলিয়া পঞ্চগড়ে চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। তিনি ওই দাগ খতিয়ানের জমি রেজিস্ট্রি সম্পর্কে তেঁতুলিয়া সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের সাব-রেজিস্ট্রারকে সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

অপরদিকে মুঠোফোনে শাহজাহান খাঁন বলেন, তিনি ও তার ভাই লুৎফর রহমান জমিটি বায়নানামা করেছেন। যাদের কাছ থেকে নেয়া হচ্ছে তাদের কাগজপত্রের মধ্যে কোন কমতি নেই। তিনি মাঠ পর্চা, খারিজসহ যাবতীয় কাগজপত্র দেখেই জমি ক্রয় করছেন। তিনি বলেন, যারা এই জমি দাবী করেন তাদের কোন কাগজপত্র নেই। ‘তাদের নেই কোন মাঠ পর্চা, নেই কোন খারিজ’।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD