বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৮:২৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম:
পাইকগাছায় পাউবো’র সম্পত্তি দখলকারী সেলিমের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় উচ্ছেদ আবেদনকারীকে প্রাণনাশের হুমকি; থানায় জিডি পাইকগাছায় বৃষ্টির অভাবে অনাবাদি ক্ষেত,শঙ্কায় আমন চাষিরা পীরগঞ্জে বিনামূল্যে হাঁস মুরগি বিতরণ নড়াইলে নানা আয়োজনে এসএম সুলতানের জন্মবার্ষিকী পালিত জোয়ার ও বর্ষনে স্লুইজ ভেঙে ভেসে গেছে মৎস্য ঘের , সমুদ্রের জেলেরা নিরাপদে। ঈদগাঁওতে সাংবাদিক কে হত্যার হুমকি-চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে থানায় জিডি মধুপুরে সাংবাদিক বাবুল রানাকে মারপিট থানায় অভিযোগ বাহুবলে প্রাইভেট কার চাপায় বৃদ্ধা নিহত সুন্দরগঞ্জে সরকারি দলের বাঁধারমুখে জাতীয় পার্টির বিক্ষোভ পন্ড পানছড়িতে মহাশ্মশান কমিটির উদ্যোগে জমজমাট মনসা পুঁতির আসর
ইলিশের দাম চড়া; খেতে পারছেনা পঞ্চগড়ের গরীব ও নিম্মবিত্তরা

ইলিশের দাম চড়া; খেতে পারছেনা পঞ্চগড়ের গরীব ও নিম্মবিত্তরা

মোঃ বাবুল হোসেন পঞ্চগড় :
বাজারে নিত্যপণ্যের দাম মানুষের নাগালের বাইরে চলে গেছে। সবজি থেকে শুরু করে ডাল, মাছ, মাংস, মুরগী সব কিছুর দাম ধরা ছোঁয়ার বাইরে। দেশি মাছ ও মুরগী এখন সবার খাবার পাতে ওঠেনা। অসহায়-দরিদ্র মানুষ এখন গরুর মাংস কিনে খেতে পারেনা। এমনকি খাসি বা ছাগলের মাংস সবার ভাগ্যে জোটেনা।

এখন চলছে ইলিশ ধরার ভরা মৌসুম। বাজারেও এই জাতীয় মাছ ইলিশ নিয়ে আসছে ব্যবসায়ীরা। বরফ দিয়ে সুন্দর করে ঢাঁকিতে পশরা সাজিয়ে তা বিক্রি করছে। দুর থেকে দেখে অনেকেই চলে যাচ্ছে। কাছে যাওয়ার সাদ্য তাদের নেই ‘এমনই ভাব তাদের।

ব্যবসায়ী মোস্তফা দাম হাকাচ্ছেন ১০০০ থেকে ১২০০ টাকা কেজি। বড় মাছ ব্যবসায়ী সাত্তারের মাছ দোকানেও দেখা গেলো ইলিশ মাছ। দাম একই ‘ ১২০০ থেকে ১৪০০ টাকা। রবিবার বিকেলে একজন ক্রেতা দাম করছেন ভাই এক হাজার টাকা কেজি দিবেন? দিলে নেই। তখন আশপাশে থাকা পথচারী ও দোকানদাররা মাছ ব্যবসায়ী ও দরদাম করা মানুষটির দিকে তাকিয়ে থাকে।

এসময় একজন বাজার করতে আসা মঙ্গলু হোক নামক ব্যক্তি বলেন আমাদের দ্বারা কি এক হাজার আর চৌদ্দশত টাকা দিয়ে মাছ কিনে খাওয়া সম্ভব। এসব খাবেন যাদের বেশি আয়, ধনী মানুষ!

ব্যবসায়ীরা জানান আমরা তো বেশি দামে কিনে আনি। আমরা কি করব। ক্ষদ্র ব্যবসায়ী রিপন বলেন আমি ছোট একজন ব্যবসায়ী দিনে আয় করতে পারিনা পাচঁশত টাকা ‘ আর এক হাজার টাকার ইলিশ কিনবো কি করে। দেখলাম বাজারে বড় সাইজের ইলিশ এসেছে দাম অনেক বেশি। আগে দেখতাম ছোট সাইজের ইলিশ আসতো। ও গুলির দাম কম তবে ‘স্বাদ নেই। খেলে বড় সাইজের ইলিশ খেতে হয়।

কায়সার আলম জানান গরীব ও নিম্মবিত্ত মানুষের পক্ষে ইলিশ খাওয়া সম্ভব নয়। বেসরকারি চাকুরীজীবী হাসান বলেন ‘ইলিশ মনে হয় জাতীয় মাছ নয়, এক স্বপ্নের নাম।

শনিবার পঞ্চগড় বাজারে গিয়ে দেখা যায় সবজির বাজার এলোমেলো। কোনটির দাম কম কোনটির আবার বেশি। পটল ২০ টাকা থেকে ৩০ টাকা কেজি, কাঁচা মরিচ ২০০ টাকা কেজি, শষা ৪০ টাকা কেজি, ঢেঁড়ষ ৪০ টাকা, বরবটি ৫০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৪০ টাকা কেজি, সোনালি মুরগী ২৭০ টাকা, ডিম প্রতি হালি ৩৮ টাকা। সয়াবিন একলিটার ১৮৫ টাকা।পেয়াঁজ প্রতি কেজি ৩৫ টাকা। বাজারে লেবুর দাম সবচেয়ে কম হালি ১০ টাকা। মসুর ডাল ১২০ টাকা থেকে ১৪০ টাকা।

গালামাল ব্যবসায়ী বাবু বলেন দাম কমলে আমরাও কমাবো। আমরা যখন যেমন দামে পাই তখন দুই চার টাকা লাভ রেখে তা বিক্রি করি। আমরা তো দেখছি বাজার ব্যবস্থা। সব নাগালের বাইরে চলে গেছে। বেশি দামে কিনতে হয় আমাদেরও।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD