July 14, 2024, 10:57 pm

বিজ্ঞপ্তি :
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দ্বায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
শিরোনাম :
খগাখড়িবাড়ী বক্স কালভাট ঝু*কিপূর্ণ হওয়ায় পথচারী  চলাচলে দূ*র্ভোগ হারাদিঘী দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় তেঁতুলিয়ায় প্রধান শিক্ষকের বিরু*দ্ধে অভিযোগের তদন্তে জেলা শিক্ষা অফিসার নড়াইলে ইয়া*বা ট্যাবলেটসহ একজন গ্রে*ফতার আশুলিয়ায় ৮ বছরের শিশুর রহ*স্যজনক মৃ*ত্যু-বাড়ির সেফটি ট্যাংকি থেকে লা*শ উদ্ধার কোটা বিরো*ধী আ*ন্দোলনের নামে মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীন দেশ নিয়ে ক*টুক্তিকারীদের দৃষ্টান্তমুলক শা*স্তি দাবি করেছেন- লাভলু নড়াইলে কলেজ ছাত্র চয়ন মাঝির আত্মহ*ত্যা ঝিনাইদহে মাদ*কদ্রব্য অ*পব্যবহার ও অ*বৈধ পা*চাঁরবিরোধী র‌্যালী অনুষ্ঠিত স্বরূপকাঠিতে ইয়া*বা দিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁ*সাতে গিয়ে নিজেরাই ফেঁ*সে গেল চাঁপাইনবাবগঞ্জ মধুমালা রেডিও ক্লাবের বৃক্ষরোপণ বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে বসতঘর পু*রে ছাই ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষ*তি
৯৯৯-এ ফোনে সুজানগরে বাল্যবিবাহ বন্ধ করল পুলিশ

৯৯৯-এ ফোনে সুজানগরে বাল্যবিবাহ বন্ধ করল পুলিশ

এম এ আলিম রিপন ঃ সরকারের টোল ফ্রি ‘৯৯৯’ নম্বরে ফোন করে তথ্য দেওয়ায় পাবনার সুজানগরে একটি বাল্য বিবাহ বন্ধ করেছে থানা পুলিশ। জানাযায়,উপজেলার তাঁতীবন্দ ইউনিয়নের পার-ঘোড়াদাহ গ্রামের মো.রওশন আলীর মেয়ে ও স্থানীয় জাহানারা কা ন স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী মোছা.রিমা খাতুন(১৫) এর সাথে জেলার বেড়া উপজেলার মাসুন্দিয়া গ্রামের মো.বাবলু হোসেনের ছেলে মো.শামীম হোসেনের বিয়ের দিন ধার্য হয় বৃহস্পতিবার। সেই অনুয়ায়ী এদিন বিয়ের সকল আয়োজন সম্পন্ন করে মেয়ের পরিবার। সন্ধ্যায় বরযাত্রী সহ বর এসে উপস্থিত হন কনের বাড়িতে। এমন সময় ‘৯৯৯’ থেকে ফোনকল পেয়ে সুজানগর থানার ওসি(তদন্ত) রাজেশ চক্রবর্তীর নির্দেশে থানার এস আই মনসুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ কনের বাড়িতে হাজির হন। এ সময় পুলিশ দেখে বর কনের বাড়ি থেকে দ্রুত পালিয়ে যায়। থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে বাল্য বিয়ের বিষয়টির সত্যতা পায় এবং সাথে সাথে বাল্যবিয়ের সকল আয়োজন বন্ধ করে দেয়। পরে পুলিশ বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে মেয়েটির অভিভাবককে অবগত করলে মেয়েটির অভিভাবক তাদের ভুল বুঝতে পারে। এবং তারা প্রতিজ্ঞা করে ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিবাহ দিবেন না, মেয়েটি পড়ালেখা চালিয়ে যাবে। সুজানগর থানার ওসি (তদন্ত)রাজেশ চক্রবর্তী জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৯৯৯-এ সংবাদদাতা তাঁর পরিচয় গোপন রেখে বাল্য বিয়ের খবরটি জানান। তাৎক্ষণিকভাবে তিনি পুলিশের একটি দল ওই এলাকায় পাঠিয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন।

এম এ আলিম রিপন
সুজানগর(পাবনা)প্রতিনিধি।।

Please Share This Post in Your Social Media






© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD