মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
জয়পুরহাটে র‌্যাবের অভিযানে ২ শত ৬৮ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক-২ হাজারো নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত নৌকার মাঝি মাসুম ভূঁইয়া আশুলিয়ার এনায়েতপুরে এক যুবককে শ্বাসরোধ করে খুন কিশোর গ্যাং কর্তৃক খুন ধর্ষণসহ বাড়ছে বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড সাংবাদিক লিটন’সহ গণমাধ্যমের সবাইকে “অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা” নওগাঁয় ফিটনেস লাইসেন্স ছাড়াই কারথানায় তৈরি হচ্ছে নারিকেল তেল কালীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সেজে হয়রানি, প্রতিবাদে গ্রামবাসীর সংবাদ সম্মেলন ও ঝটিকা মিছিল ফুলবাড়িয়ায় প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থীরা পেল গিফট বক্স নড়াইলে অস্ত্র মামলায় যাবজ্জীবন র‌্যাব-১২’র অভিযানে পাবনার ভাঙ্গুড়ায় গাঁজাসহ ০৩ জন মাদক কারবারী আটক
কেশবপুরে কুকুরের কামড়ে ১৩শিশুসহ ২৫ জন আহত প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্য বাড়ছে

কেশবপুরে কুকুরের কামড়ে ১৩শিশুসহ ২৫ জন আহত প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্য বাড়ছে

মোঃ জাকির হোসেন,কেশবপুর(যশোর)ঃ কেশবপুরে গত তিন দিনে কুকুরের কামড়ে ১৩ শিশুসহ ২৫ জন মানুষ হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন। প্রতিদিন হাসপাতালে রোগী সংখ্য বৃদ্ধি পারচ্ছে। উপজেলার কড়িয়াখালি, পাঁজিয়া, বেগমপুর ও কমলাপুর কুকুরের কামড় ও আক্রমনে আহতের মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে শুধু মানুষ নয়, গরু, ছাগল, হাস মুরগী ও কুকুরের আক্রমণের শিকার হচ্ছে। কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে গত তিন দিনে ২৫ জন কুকুরের কামড়ে আহত হয়ে কেশবপুর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। ১৫সেপ্টেম্বর সকাল থেকে ১৬সেপ্টেম্বর বিকাল পর্যন্ত কুকুরের কামড়ে আহত হয়ে কেশবপুর ও মণিরামপুর উপজেলার ৫ গ্রামের মানুষ কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। কুকুরের কামড়ে আহতদের কারো হাত, পা ও মুখ ক্ষতবিক্ষত হয়েছে।
গত ১৫সেপ্টেম্বর ও ১৬সেপ্টেম্বর আক্রান্তরা হলেন, মণিরামপুর উপজেলার রসুলপুর গ্রামের আব্দুস সামাদ (৬০), সুফিয়া (৪০), হাবিবুর (৩৫), কেশবপুর উপজেলার কড়িয়ালি গ্রামের আয়েব আলি (৩৫), বেগমপুর গ্রামের আলামিন (৮), মোজাহিদ (৫), ইসরাফিল (১১), কমলাপুর গ্রামের জেবুন্নেছা (৫০) ও পাঁজিয়া গ্রামের আবু মুসা (৩)। কেশবপুর উপজেলা কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আনারুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন প্রতিদিনই হাসপাতালে কুকুরে কামড়ে আহত রোগীরা চিকিৎসা নিচ্ছে। একের পর এক মানুষ কুকুরের দ্বারা আক্রান্ত হওয়ায় এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা ও জলাতঙ্ক রোগের টিকা দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দিচ্ছি।
কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম আরাফাত হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের বলেন, ক্ষিপ্ত প্রকৃতির কুকুর পথে-ঘাটে, বাড়ি এলাকায় যাকে পাচ্ছে তাকেই কামড় ও আক্রমণ চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় কুকুর নিধন অভিযান পরিচালনা করা যাচ্ছে না। এসব ক্ষিপ্ত প্রকৃতির কুকুরগুলোকে ভ্যাকসিন দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালে জলাতঙ্ক রোগের টিকা মজুদ রয়েছে। কুকুরকে উত্যক্ত না করে সতর্কভাবে চলাচলের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

মোঃ জাকির হোসেন
কেশবপুর,যশোর

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD