রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩২ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈলে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনকারী জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন মুন্সীগঞ্জ মিরকাদিমে ডিবি পুলিশের অভিযানে ২৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ একজন গ্রেপ্তার করোনায় মানুষকে বাঁচাতে শেখ হাসিনা যখন যা দরকার সবই করছেন-অধ্যাপক ডাঃ এম এ আজিজ।। জনসেবার ইচ্ছা থেকেই ইউপি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি- ত্রিশালের কাঁঠালে প্রার্থী ফাতেমা খাতুন।। অ্যাডভোকেট তালিকাভুক্তি হলেন সাংবাদিক তরিকুল ইসলামে ছোট ভাই ‘আবু সাহিদ’ বি‌ডি‌সি ক্রাইম বার্তার উপদ‌েষ্টা কে ফু‌লের শু‌ভেচ্ছা জানা‌লেন বি‌ডি‌সি ক্রাইম বার্তা প‌রিবার তারাকান্দায় প্রয়াত চেয়ারম্যানপুত্র শিশিরকে নৌকার মাঝি হিসাবে চান ভোটাররা। সরকারের ভিশন বাস্তবায়নে নিরলস প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন চেয়ারম্যান উজ্জল। ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণকাজ উদ্বোধন করেছেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দুর্যোগে জনগণের পাশে ছিল শেখ হাসিনা সরকার-পলক
পাবনা সাঁথিয়ায় পেয়াঁজের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

পাবনা সাঁথিয়ায় পেয়াঁজের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

পাবনা প্রতিনিধি ঃ পাবনার সাঁথিয়ায় এ বছর পেঁয়াজের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এ বছর পেঁয়াজের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছে এলাকার কৃষকেরা ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

পাবনা জেলা কৃষিসম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুত্রে জানা যায়, বাংলাদেশের প্রায় ৭০ ভাগ পেঁয়াজের চাহিদা পুরণে সক্ষম পাবনা জেলার ৯টি উপজেলায় এ বছরে মুলকাটা ও চারা পেঁয়াজ মিলে ৪৯ হাজার ৩ শ’ ১৫হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে।

এর মধ্যে সাঁথিয়া উপজেলাতেই ১৬ হাজার ৯৫০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের আবাদ হয়েছে।

এলাকার বিভিন্ন হাট বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এ বছর মুল কাটা পেঁয়াজের বিঘা প্রতি ফলন হয়েছে ৫০ থেকে ৬০ মণ। মুলকাটা পেঁয়াজের বাম্পার ফলন হলেও দাম কম হওয়ায় লোকসান গুনতে হচ্ছে কৃষকদের।

উপজেলার পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় হাট সিএন্ডবি চতুর হাট ও বোয়ালমারী হাটে গিয়ে দেখা যায়, মুলকাটা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে মান ভেদে ৪০০ থেকে সর্বোচ্চ ৬৫০ টাকায়।

ফলে কৃষকের উৎপাদন খরচই উঠছে না। তারা জানায়, মুলকাটা পেঁয়াজের দাম এত নিচে নামবে তা কখনও ভাবিনি। কমপক্ষে ১ হাজার টাকায় বিক্রি করলে কিছু লাভ থাকতো, জানান পেঁয়াজ বিক্রি করতে আসা কৃষকরা।

বিভিন্ন এলাকার পেঁয়াজের মাঠ ঘুরে দেখা যায়, মাঠকে মাঠ শুধু পেঁয়াজ আর পেঁয়াজ। যতদুর চোখ যায় শুধু পেঁয়াজ আর পেঁয়াজের ক্ষেত।
কয়েকদিন আগে হঠাৎ বৃষ্টি হওয়ায় একে পেঁয়াজের জন্য মধু হিসাবে গণ্য করছে কৃষকেরা। এখন দানা মোটা হওয়ার সময় বলে বৃষ্টি খুবই উপকারে আসবে তাদের।

গত বছরও ঠিক এই সময়টাতে বৃষ্টি হওয়ায় উৎপাদন বেশী হয়েছিল। অন্যদিকে মোটা দানার পেঁয়াজের আবাদে খরচ যেমন বেশী তেমনী ফলনও বেশী। সঠিক দাম না পেলে এখানেও লোকসান গুনতে হবে কৃষকদের।

কৃষকেরা জানায়, গত ২ বছর ধরে পেঁয়াজের লোকসান গুনছি। এখন দুঃচিন্তায় আছি যদি চারা পেঁয়াজের দাম এ রকমই থেকে যায় তবে এ বছরও চরম লোকসানে পড়ে যাবে।

তবে এবার সে খরচ পুষিয়ে নিতে পেঁয়াজের ন্যায্য দাম আশা করছে এলাকার কৃষকেরা ।

সাঁথিয়া উপজেলার ঘুঘুদহ গ্রামের আব্দুল কদ্দুস মেম্বর জানান, মুল কাটা পেঁয়াজের খুবই ভাল ফলন হয়েছে।

চারা পেঁয়াজেরও ভাল ফলন হবে আশা করছি। তবে বর্তমানে বাজারে পেঁয়াজের যে দাম চলছে তাতে খরচই উঠবে না।

বোয়াইলমারী হাটে পেঁয়াজ বিক্রি করতে আসা চরশংকর পাশা গ্রামের কৃষক মুন্নাফ জানায়, আমার ২ বিঘা জমিতে এবার মুলকাটা পেঁয়াজ লাগিয়েছিলাম।

ভেবে ছিলাম এই পেঁয়াজ বিক্রি করে চারা পেঁয়াজের পরিচর্যা করবো। কিন্তু তা আর হচ্ছে কোথায়? যে দামে বিক্রি করলাম পুরোটাই লোকসান এবার।

পৌরসভাধীন আমোশ গ্রামের শাহিন ও শালঘর গ্রামের আঃ রাজ্জাক জানান, এক বিঘা পেঁয়াজ আবাদে খরচ হয় প্রায় ৩০ হাজার টাকা।

আমার ৫ বিঘা জমিতে পেঁয়াজ আবাদ করতে গিয়ে এ বছর যে খরচ হয়েছে তাতে ন্যায্য মুল্য না পেলে অনেক লোকসানে পড়ে যাব।

পাবনা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক আজহার আলী জানান, আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এ বছর মুলকাটা পেঁয়াজের মতই মোটা বা চারা পেঁয়াজেরও বাম্পার ফলন হবে।

এ বছর মুলকাটা পেঁয়াজের দাম কম থাকায় উৎপাদন খরচ উঠলেও লাভবান হতে পারছেন না কৃষক। সরকার যদি অন্যান্য ফসলের মত পেঁয়াজ সংরক্ষণ করেন এবং তাতে কৃষকেরা যদি ন্যায্য মূল্য পান তবে তারা তারা লাভবান হতে পারবেন।

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD