বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৮:২৪ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
বানারীপাড়ায় দুদিন ব্যাপী বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা সম্পন্ন বীরগঞ্জের নিজপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা ও বার্ষিক উন্নয়ন পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত আশুলিয়ায় কিশোর গ্যাং মাদক সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত-৭, থানায় একাধিক অভিযোগ আশুলিয়া সাংবাদিক সমন্বয় ক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা মঞ্জুরুল আলম রাজিবকে অভিনন্দন নড়াইলে ২১৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার যুবক গ্রেপ্তার রাজারহাটে আনসার ভিডিপি’র উপজেলা সমাবেশ-২০২২ অনুষ্ঠিত ভারশোঁ ইউপির উথরাইল বিলে মাছের পোনা অবমুক্ত নড়াইলে মাছের ঘেরে গাঁজা চাষ, আটক ২ নাচোলে ভোটার তালিকা হালনাগাদ উপলক্ষে মতবিনিময় কেশবপুরে বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে ফাইনালে চাম্পিয়ান সুফলাকাটি ইউনিয়ন ফুটবল একাদশ
নির্বাচন এলেই ডিগবাজী:উদ্দেশ্য মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে থাকা

নির্বাচন এলেই ডিগবাজী:উদ্দেশ্য মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে থাকা

কেএম শহীদুল,সুনামগঞ্জ
নির্বাচন এলেই মনোনয়ন যুদ্ধে সামিল হতে সর্বোচ্চ লবিং-গ্রুপিং যার নেশা। প্রয়োজনে পালা বদল,শর্ত মনোনয়ন নিশ্চিত। তবে প্রেক্ষাপট অনুযায়ী বিভিন্ন সময়ে মোর্চা পরিবর্তনেও যার জুড়ি মেলা ভার। হ্যাঁ। তালার ইতিহাসে এক কলঙ্কময় অধ্যায়ের রচয়িতা হিসেবে বার বার যার নাম উঠে আসে সেই সৈয়দ দিদার বখ্ত এর বর্ণাঢ্য উপাখ্যান সম্পর্কে জানান দিতেই আজকের আয়োজন।
উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরার তালা উপজেলার তেঁতুলিয়ার প্রখ্যাত সৈয়দ পরিবারে জন্ম সৈয়দ দিদার বখ্ত’র। তাাঁর পিতার নাম সৈয়দ শরফুদ্দিন হাশেমী। … ভাই-বোনের মধ্যে তিনি…। পাকিস্তান শাষনামলে ভাসানী ন্যাপের মধ্য দিয়েই তার রাজনীতিতে অনুপ্রবেশ। পট পরিবর্তন করে নাম লেখান কমিউনিষ্টে। তবে ৭১’র মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় যোগ দেন সিপিপিতে। ৭১’র যুদ্ধ চলা কালীণ তার নেতৃত্বে একের পর এক খুন হতে থাকে তালার মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের বিভিন্ন স্তরের বুদ্ধিজীবি,জনপ্রতিনিধি ও মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সংগঠকদের। যেন সেসময় পাকিস্তানের এজেন্ডা বাস্তবায়নে কোন দৃশ্যমান লৌহমানবের প্রতিচ্ছবি তার মধ্যে। অস্ত্র হাতে তার নেতৃত্বে পর্যায়ক্রমে খুন হয়,উপজেলার বালিয়া দহের তৎকালীণ ইউপি চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন বিশ্বাস,সদরের মুক্তিকামী আব্দুল মালেক,বারুইহাটির জয়নুদ্দীন সরদার ও তার ছেলে আলাউদ্দীন সরদার,মোবারকপুরের শেখ আব্দুল কাদেরসহ অনেকে। তবে পরিস্থিতি ভিন্ন দিকে মোড় নিচ্ছে বিষয়টি আঁচ করতে পেরে জার্নালিজমের ছাত্র দিদার বখ্ত নাম লেখান আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা এনাতে। শুরু করেন ভিন্ন ধারার সাংবাদিকতা। মূলত তখন থেকেই রাজনীতিতে ভোল পাল্টাতে শুরু করেন।
স্বাধীনতা পরবর্তী কয়েক বছরে নানা ট্রাজেডিতে তার ভূমিকা স্পষ্ট না হলেও ৮০’র দশকে জেনারেল হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ ক্ষমতায় আসীন হলে কপাল খোলে দিদার বখ্তের। সদ্য গঠিত জাতীয় পার্টিতে অন্তর্ভূক্ত হয়ে নিজের কালো অধ্যায়ের কালিমা লেপনে সাদা মানুষে রুপ দেন নিজেকে। এক কথায় জাতীয় পার্টির হাত ধরে নতুন ধারার রাজনীতিতে অনুপ্রবেশ করেন তিনি। সুবিধাও আদায় করেন। প্রথমে জাতীয় সংসদের হুইপ ও পরে মন্ত্রী পরিষদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রতি মন্ত্রীর পদ বাগিয়ে নেন। ঐসময়ে ভঙ্গভূমি আন্দোলনের ব্যানারে পতাকা উত্তোলনের দায়ে তালা কলেজের অধ্যক্ষ জগদীশ কুমার,প্রভাষক যোগেশ চন্দ্র বিশ্বাস,প্রভাষক নমিতা রাণী,স্থানীয় প্রভাবশালী ডাঃ মলয় ভদ্র,সুভাষ পাঠকসহ বহু সনাতন ধর্মাবলম্বীদের নামে হয়রাণিমূলক মামলা জড়িয়ে বিশেষ ফায়দা লোটেন।
বরাবর সুযোগসন্ধানী ও স্বার্থপরায়ন প্রকৃতির দিদার বখ্ত অভ্যূত্থানের মাধ্যমে জাতীয় পার্টি ক্ষমতাচ্যুত হলে তিনিও ডিগবাজি খান। সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়ার) মনোনয়ন পেতে কর্ণেল অলির এলডিপিতে যোগদান করেন। তবে এলডিপি রাজনীতিতে সুবিধা করতে না পারায় রাতারাতি ভোল পাল্টান সৈয়দ দিদার। যো দেন বিএনপিতে,উদ্দেশ্য দলীয় মনোনয়ন টিকিট। তবে সেখানেও জায়গা করতে না পারায় স্বীয় স্বার্থে তিনি ফের ডিগবাজি দিয়ে সংসার পাতেন পুরনো ঘর জাতীয় পার্টিতে। গত ৯ম ও ১০ ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি আওয়ামীলীগের সাথে মোর্চাবদ্ধ হলে সুবিধাজনক জায়গা খঁজে পায় জাতীয় পার্টি। আর এ লক্ষে আসনটিতে মনোনয়ন পেতে সর্বোচ্চ পর্যায়ে তদ্বির করেও ফায়দা আসেনি তার। তবে এবারও ভোটের আগে মাঠের লড়াইয়ে নিজেকে জিইয়ে রাখতে না পারলেও দলীয় সর্বোচ্চ পর্যায়ের লবিং করছেন মনোনয়ন টিকিট বাগিয়ে নিতে।
তবে আ’লীগের অন্যতম শরীক ওয়ার্কার্স পার্টির সফল প্রতিনিধির দক্ষ পরিচালনায় এগিয়ে চলা জনপদের বিতর্কিত নেতৃত্বে ১৪ দলীয় মহাজোট কি ছেড়ে দেবে আসনটি?

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD