বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:২৬ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
ফুলবাড়িয়া উপজেলা পরিষদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত অভিযান চলমান: আশুলিয়ায় তিতাস গ্যাসের অবৈধ সংযোগ বন্ধ হচ্ছে না কেন? পাইকগাছায় খেঁজুরের রস আহরণে ব্যস্ত গাছিরা রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জল হোসেন দিনাজপুরে লক্ষিত জন গোষ্ঠীর মাঝে সবজির চারা বিতরণে মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম স্বাদে অতুলনীয় আত্রাইয়ের নারীদের তৈরি কুমড়ো বড়ি মহেশপুরের ভারতীয় সীমান্ত থেকে এক বাংলাদেশীর লাশ উদ্ধার। নড়াইলের জয়পুর শ্রী তারক ধামে সন্ত্রাসী হামলায় মতুয়ারা আহত বিচারের দাবী র‌্যাব-১২’র পৃথক অভিযানে সিরাজগঞ্জের সদরে ইয়াবা ও ফেন্সিডিলসহ ০৩ জন মাদক কারবারী আটক তারাগঞ্জে বাস-পিকআপ মুখোমুখি সংঘর্ষ নিহত ১
রাব্বানির গাড়ি বহরে হামলা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

রাব্বানির গাড়ি বহরে হামলা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক ।।।
রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) ভিআইপি এই সংসদীয় আসনের রাজনৈতিক অঙ্গনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুন্ডুমালা পৌর মেয়র গোলাম রাব্বানী ফের আলোচনায় উঠে এসেছে, জসমনে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। চলতি বছরের ১৬ সেপ্টেম্বর রোববার গোদাগাড়ী উপজেলার পিরিজপুর এলাকায় গোলাম রাব্বানীর শো-ডাউনের গাড়ী বহরে দৃর্বৃত্তদের হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় রাব্বানীকে নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে ফের এসব আলোচনার সূত্রপাত হয়েছে। রাজশাহী জেলা ও তানোর উপজেলা থেকে শুরু করে নির্বাচনী এলাকার আনাচে-কানাচে আলোচনা দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে। ওদিকে গাড়ী বহরে হামলার ঘটনায় পরস্পরবিরোধী বক্তব্য উঠেছে এসেছে, রাব্বানীর অনুগতদের দাবি এমপি ওমর ফারুক চৌধূরীরর ইন্ধনে তার ক্যাডার বাহিনী এমন ন্যাক্কারজনক হামলা করেছে। তারা দাবি করেন, এমপি ফারুক চৌধূরী জনবিচ্ছিন হয়ে রাব্বানীর জনপ্রিয়তায় ভিত হয়ে তার ক্যাডার বাহিনী দিয়ে এমন হামলা করিয়েছে। এদিকে রাব্বানী এমপি মনোনয়ন প্রত্যাশা করে প্রচারে নামলেও নির্বাচনী এলাকার আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের দায়িত্বশীল কোনো নেতাকর্মী ছিলনা এখানো নাই। ফলে জসমনে প্রশ্ন উঠেছে তাহলে এতা বিশাল শো-ডাউন করলেন তিনি কাদের নিয়ে, আর সাংগঠনিক নেতাকর্মী যদি তার সঙ্গে না থাকে তাহলে তার ভোট করবে কে-?।
অপরদিকে এমপি ওমর ফারুক চৌধূরীর অনুগতদের দাবি গণমাধ্যমে প্রচার পেতে ও এমপি ফারুককে বির্তকিত করতেই এমপিবিরোধী শিবিরের সঙ্গে যোগসাজশ করে তাদের ইন্ধনে রাব্বানী এমন হামলা ও ভাংচুরের নাটক করেছেন। তারা বলছে, এমপি ফারুককে নেতৃত্ব থেকে সরাতে জামায়াত-বিএনপির কাছে থেকে বিপুল অঙ্কের আর্থিক সুবিধা নিয়ে তাদের বি-টিম হয়ে একটি মহল দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতির মাঠে ফারুকবিরোধী বলয় সৃষ্টি করতে মরিয়া হয়ে উঠে নানা অপতৎপরতায় জড়িয়ে পড়েছে তবে তাদের সেই অপতৎপরদা বার বার ব্যর্থ হচ্ছে এবারো হয়েছে। তবে তারা বসে নাই একের পর এক সাসা পরিকল্পনা করেই চলেছে। তারা বলেন, এখানে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এমপি ফারুকের কোনো বিকল্প নেতৃত্ব নাই আর রাব্বানী কখানোই এমপি ফারুকে প্রতিদ্বন্দ্বী হতে পারে না এটা আওয়ামী লীগ বিরোধীরাও বিশ্বাস করে না। তাহলে এমপি ফারুক কেনো রাব্বানীর শো-ডাউনের গাড়ী বহরে হামালা-ভাংচুর করাবে ? ইত্যাদি নানা প্রশ্ন জনমনে সৃষ্টি হয়েছে আবার মূখরুচক নানা গুঞ্জনও বইছে।
অনুসন্ধানে উদ্বেগজনক তথ্য উঠে এসেছে, চলতি বছরের ১৪, ১৫ ও ১৬ সেপ্টেম্বর গোলাম রাব্বানী তিন দিনের কর্মসূচি হাতে নিয়ে ছিলেন। তিনি ১৪ ও ১৫ সেপ্টেম্বর ছোট পরিশরে গোদাগাড়ীর বিভিন্ন এলাকায় বিনা বাধায় প্রচার-প্রচারণা ও গণসংযোগ করলেও সাধারণের দৃষ্টি কাড়তে ও ভোটারদের সাড়া পেতে ব্যর্থ হয়েছেন। তিনি দিনের পর দিন তানোর-গোদাগাড়ীর বিভিন্ন এলাকায় বিনা বাধায় পথসভা, গণসংযোগ ও প্রচার-প্রচারণা করেছেন। অথচ কর্মনূচির শেষ দিন ১৬ সেপ্টেম্বর তিনি প্রায় সহস্রাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে দৃষ্টিনন্দন শো-ডাউন ও গাড়ি বহর নিয়ে গোদাগাড়ীর পিরিজপুর পৌচ্ছামাত্র দুর্বৃত্তরা গাড়ি বহরে হামলা করেছে। এখন প্রশ্ন হলো-এমপি যদি গাড়ী বহরে হামলা করায় তাহলে তো আগের দিন করাতে পারতেন, তা না করে তিনি বিশাল শো-ডাউনের দিনে হামলা করাবেন কেন ?, আবার শো-ডাউনে মেয়রের গাড়ীর সামনে পিছনে মোটর সাইকেল বহর ছিল, তবে পিরিজিপুর পৌচ্ছামাত্র নিমিষেই এসব মোটর সাইকেল উধাও মেয়রের গাড়ী একা, আবার হামলা-ভাংচুরের পরপরই মুহুর্তের মধ্যে মোটরসাইকেল বহর হাজির তাহলে হামলাকারি কি আগেই ঠিক করা ছিল নইলে তারা কিভাবে বুঘলো পিরিজপুর মেয়র গাড়ির সঙ্গে মোটরসাইকেল বহর থাকবে না ?। আবার এতো বড় রাজনৈতিক কোনো কর্মসুচি দিতে গেলে আগেই প্রশাসনের অনুমতি নিতে হয় বা অবগত করতে হয় তবে, তারা প্রশাসনকে এবিষয়ে কিছুই জানাননি কেন ? হামলাকাদিরে বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ করা হলো কেন ? বা এই হামলার ঘটনায় তিনি কোনো কর্মসূচি দিলেন না কেন ? ইত্যাদি হাজারো প্রশ্ন সাধারণ মানুষের মনে ঘুরপাক খাচ্ছে মিশ্র প্রতিক্রিয়াও দেখা দিয়েছে। আবার অনেকে বলছে, আসলে তারা বার বার এমপি ফারুকবিরোধী বলয় সৃষ্টি করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে গণমাধ্যমে প্রচার পেতে এমন নাটক করেছে। তাদের অভিমত, নির্বাচনে এমপি ফারুককে পরাজিত করে এখানে কেউ এমপি নির্বাচিত হতে পারবে না। এস কারণে জামায়াত-বিএনপি বিপুল অঙ্কের টাকা বিনিয়োগ করে তাদের বি-টিম হিসেবে আওয়ামী লীগের একশ্রেণীর নেতাকে মাঠে নামিয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD