বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৩৮ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
আসন্ন ১০নং জামালপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ২বারের সফল মেম্বার আবারো টিউবওয়েল মার্কার সদস্য পদপ্রার্থী ফসলি জমিতে ইটভাটা-পরিবেশ দূষণ হলেও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নিরবতা নিয়ন্ত্রণহীন স্বর্ণের দাম-হাজার হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে মানবেতর জীবনযাপন সুজানগরে পাট ব্যবসায়ী ও স্টেক হোল্ডারদের সাথে উদ্বুদ্ধকরণ সভা পাইকগাছার গড়ইখালী আলমশাহী ইনিস্টিউটের বার্ষিক ফলাফল ঘোষনা পুরস্কার বিতরণ আজ ঐতিহাসিক পাইকগাছার কপিলমুনি মুক্ত দিবস নড়াইলের লোহাগড়া ১২ ইউপিতে প্রতীক বরাদ্দ আগামী ২৬ নভেম্বর। নির্বাচন বগুড়ায় পুলিশের হয়রানি বন্ধে সাংবাদিক সম্মেলন নওগাঁর আত্রাইয়ে আইজিপি কাপ-২০২১ জাতীয় যুব কাবাডি প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ঈদগাঁওর সার্বিক নিরাপত্তার নিশ্চিতে পুলিশের অভিযান আটক -২
নওগাঁয় পুলিশের বিরুদ্ধে বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর হয়রানিমূলক মামলার অভিযোগ

নওগাঁয় পুলিশের বিরুদ্ধে বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর হয়রানিমূলক মামলার অভিযোগ

নওগাঁ প্রতিনিধি: সারা দেশের ন্যায় নওগাঁতেও বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে একের পর এক মামলা দেয়া হচ্ছে। বেশির ভাগ মামলা দেয়া হচ্ছে হয়রানি মূলক। এছাড়া এসব মামলায় অজ্ঞাত আসামির সংখ্যাও অনেক। এমনকি হজ্ব, বিদেশে শ্রমিক, জেলার বাহিরে চাকুরিরতা এ মামলার হাত থেকে রেহাই পাননি অনেকে। পুলিশকে মারধর করার মতো কোনো ঘটনাই ঘটেনি। অথচ মামলার এজাহারে পুলিশের উপর হামলা করা হয়েছে বলে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে দাবী করছেন বিএনপির নেতাকর্মরা।

বিএনপি নেতাকর্মীরা মনে করছেন, নির্বাচন সামনে রেখে বিরোধী দলকে চাপে রাখতেই এ ধরনের মামলায় ভুতুড়ে আসামি করা হচ্ছে। এর মধ্য দিয়ে তাদের সতর্ক করা হচ্ছে।

নওগাঁ পুলিশ সুপার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, জেলার ১১টি উপজেলায় গত ১-১৫ সেপ্টেম্বর থেকে নাশকতা, মারপিট, হামলা, মাদক ও নিয়মিত ৭৯৪টি মামলা হয়েছে।

আত্রাই থানায় মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ১ সেপ্টেম্বর জেলার আত্রাইয়ে বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে উপজেলার নতুন বাজার তুলাপট্টি তিন মাথার মোড় এলাকায় বেলা ১১টার দিকে র‌্যালী বের হয়। এসময় দলবদ্ধ হইয়া লাঠি সোডা নিয়ে সড়কে চলাচলরত জনসাধারণকে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে সরকার বিরোধী বিভিন্ন শ্লোগান দেয় এবং রাস্তায় চলাচলরত যানবাহন ভাংচুর করে। এ সময় পুলিশ তাদের বাঁধা দিলে বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের উপর হামলা করে। এতে মামলার বাদীসহ বেশ কয়েক জন পুলিশ সদস্য আহত হয়। বিএনপি নেতাকর্মীদের হামলায় পুলিশ কর্মকর্তার মোটরসাইকেল ক্ষতি গ্রস্থ্য হয় বলে এজাহারে উল্লেখ আছে। এঘটনায় থানা উপ-পরিদর্শক সুতসোম সরকার বাদি হয়ে ওইদিন রাতেই বিএনপির ৩১ নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরো ৩/৪শ’ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

ওই মামলার দুই আসামী উপজেলার যাত-আমরুল গ্রামের শেখ মঞ্জুরুল আলমের ছেলে উপজেলার ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মনোয়ার হোসেন এবং সদুপুর গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে উপজেলার ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ইলিয়াস আলী। জানাগেছে, মনোয়ার হোসেন দীর্ঘদিন থেকে ঢাকায় কোম্পানিতে চাকুরি করছেন। আর ইলিয়াস আলী গত দু’বছর থেকে সিঙ্গাপুরে আছেন।আত্রাই থানা বিএনপি’র আহবায়ক শেখ রেজাউল ইসলাম রেজু বলেন, প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর জন্য থানা ও ইউএনও অফিসে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছিল। অথচ র‌্যালী শুরুর পূর্বে পুলিশ বিনা উষ্কানিতে হামলা করে। পুলিশ নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন। নির্বাচনের আগেই মাঠ শূন্য করতেই পুলিশের এ পদক্ষেপ।

আত্রাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোবারক হোসেন বলেন, ঘটনায় তিনজনক আটক করা হয়েছিল। এছাড়া নামে যেসব আসামী ছিলেন তারা গত ৫ সেপ্টেম্বর আদালতে আত্মসমর্পন করেছেন।

অপরদিকে, নওগাঁ সদর থানার মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ০২/০৯/১৮ ইং তারিখে রাত দেড়টার দিকে শহরের চকমুক্তার এলাকায় রাষ্ট্রবিরোধী কার্যকলাপ নাশকতা ও ধ্বংসাত্বক কাজ সংগঠনের লক্ষে গোপন ৪০/৪৫ জন জামাত শিবিরের নেতা কর্মীরা সমাবেত হয়ে বৈঠক করছিল। গোপন সংবাদে সদর থানা পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করে দুইজনকে আটক করলেও অন্য সবাই পালিয়ে যায়। অন্যদের মধ্যে মামলার ৩ নম্বর আসামী সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আ.স.ম সায়েম উদ্দিন সহ অজ্ঞাত ৪০/৪৫ জন ব্যক্তি নাশকতা মূলক কার্যক্রম অনুষ্ঠানের জন্য প্রস্তুতি মূলক মিটিংয়ে উপস্থিত ছিল বলে উল্লেখ করা হয়।
জানাগছে, অ্যাডভোকেট আ.স.ম সায়েম উদ্দিন গত ২২/০৭/১৮ ইং তারিখে পবিত্র হজ্ব পালনের উদ্যেশ্যে সৌদি আরবে গমণ করেন এবং ০৫/০৯/১৮ ইং (বুধবার) ভোরে বাংলাদেশে ল্যান্ড করেন।

নওগাঁ সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ভুক্তভোগী অ্যাডভোকেট আ.স.ম সায়েম উদ্দিন বলেন, হজ্বে থাকা অবস্থায় পুলিশ আমার নামে মামলা দিয়েছে। হজ্বব্রত পালন শেষে বাড়িতে এসে বিষয়টি জানতে পেরেছি। পুলিশ আমায় খুঁজতেছে। রাতে বাড়িতেও থাকতে পারছিনা। আমার নামে মিথ্যা মামলা চাপানো হয়েছে। ইতোপূর্বেও আমার নামে বেশ কয়েকটি মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে।

মান্দা থানার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ০৪/০৯/১৮ ইং তারিখে উপজেলার গাড়ীক্ষেত্র ইসলামী দাখিল মাদ্রাসার অফিস কক্ষের পাশে রাত সাড়ে ৯টার দিকে ২০/২৫ ব্যক্তি নাশকতামূলক ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম করার উদ্যেশে জমায়েত হয়েছিল। পুলিশের উপস্থিত বুঝতে পেরে তারা পালানো চেষ্টা করলে পুলিশ দুইজনেক আটক করলেও বাকী সবাই পালিয়ে যায়। ঘটনায় ০৫/০৯/১৮ ইং তারিখে ৮জনকে আসামী করে থানায় মামলা হয়।

মামলার ৩ নম্বর আসামী ইয়াছিন আলী (৫০)। বাড়ী মান্দা উপজেলার চকহারিনারায়ন গ্রামের মৃত আব্দুল্লাহর ছেলে। হজ্বে থাকা অবস্থায় ইয়াছিন আলীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়।

নওগাঁ জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু বলেন, সারা দেশে বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে একের পর এক মামলা দেয়া হচ্ছে। যার বেশির ভাগ মামলা হয়রানিমূলক। তারপরও বিএনপির সাবেক প্রধান মন্ত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে নতুন করে নেতাকর্মীরা উজ্জিবিত হচ্ছে। নির্বাচন সামনে রেখে বিরোধী দলকে চাপে রাখতেই এ ধরনের মামলা দেয়া হচ্ছে নেতাকর্মীরা যেন মাঠে নামতে না পারে। এছাড়া নীল নকশা নির্বাচন করার একটা প্রক্রিয়া চলছে।#

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD