বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:১৪ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
আসন্ন ১০নং জামালপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ২বারের সফল মেম্বার আবারো টিউবওয়েল মার্কার সদস্য পদপ্রার্থী ফসলি জমিতে ইটভাটা-পরিবেশ দূষণ হলেও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নিরবতা নিয়ন্ত্রণহীন স্বর্ণের দাম-হাজার হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে মানবেতর জীবনযাপন সুজানগরে পাট ব্যবসায়ী ও স্টেক হোল্ডারদের সাথে উদ্বুদ্ধকরণ সভা পাইকগাছার গড়ইখালী আলমশাহী ইনিস্টিউটের বার্ষিক ফলাফল ঘোষনা পুরস্কার বিতরণ আজ ঐতিহাসিক পাইকগাছার কপিলমুনি মুক্ত দিবস নড়াইলের লোহাগড়া ১২ ইউপিতে প্রতীক বরাদ্দ আগামী ২৬ নভেম্বর। নির্বাচন বগুড়ায় পুলিশের হয়রানি বন্ধে সাংবাদিক সম্মেলন নওগাঁর আত্রাইয়ে আইজিপি কাপ-২০২১ জাতীয় যুব কাবাডি প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ঈদগাঁওর সার্বিক নিরাপত্তার নিশ্চিতে পুলিশের অভিযান আটক -২
ময়মনসিংকে তিলোত্তমা শহর গড়ার লক্ষে ২০১৮-১৯অর্থ বছরের বাজেট ঘোষনা করলেন মেয়র টিটু

ময়মনসিংকে তিলোত্তমা শহর গড়ার লক্ষে ২০১৮-১৯অর্থ বছরের বাজেট ঘোষনা করলেন মেয়র টিটু

মোঃ আরিফ রববানী ঃ

আগামী দিনে ময়মনসিংহ পৌরসভার উন্নয়ন কার্যক্রমকে আরো তরান্নিত করে পৌর এলাকাকে তিলোত্তমা শহরে রুপান্তর করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলার অন্তর্গত শহর হিসাবে গড়ে উন্নয়নের মানসকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে পৌর উন্নয়নে ১৬০,৮৯,৭৪,০৪৪.০০ (একশত ষাট কোটি,উনানববই লাখ,চুয়াত্তুর হাজার চুয়াল্লিশ) টাকার উম্মুক্ত বাজেট ঘোষনা করেছেন পৌর মেয়র ইকরামুল হক টিটু। ২রা জুলাই বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ ঘটিকায় পৌরসভার শহীদ সাহাব উদ্দীন মিলনায়তনে আয়োজিত দেড়শত বছরের পুরোনো ময়মনসিংহ পৌরসভার বাজেটেত্তোর সংবাদ সম্মেলনে মেয়র ইকরামূল হক টিটু বলেন, আগামী ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারীর মধ্যে ময়মনসিংহ একটি তিলোত্তমা নগরী হিসাবে গড়ে উঠবে। শহরের বিভিন্ন রাস্তাঘাট, ড্রেন উন্নয়নে চলমান কাজ আগামী দুইমাসের মধ্যে শেষ হবে। এছাড়া ১২৯ প্রকল্পের মাধ্যমে শহরের বড় বড় রাস্তা ও ড্রেন উন্নয়ন করা হবে। যা ইতিমধ্যেই দরপত্র আহবান করা হয়েছে। উল্লে­খিত দরপত্রের কাজগুলো আগামী ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারীর মধ্যেই অবশ্যই সমাপ্ত হবে। আর ১২৯টি প্যাকেজের কাজ শেষ হলেই ময়মনসিংহবাসীর চাহিদা অনুসারে এ শহর একটি তিলোত্তমা নগরী হিসাবে গড়ে উঠবে।
মেয়র টিটুর সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক আতাউল করিম খোকন, বাবুল হোসেন, নিয়ামুল কবীর সজল প্রমুখ। এ সময় পৌর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ রফিকুল ইসলাম মিঞা, পৌর সচিব আব্দুল হালিম, হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা অসীম কুমার, প্যানেল মেয়র, কাউনিসলরগন, এনজিও কর্মকর্তাসহ প্রিন্ট ও ইলেক্টনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।
ইতিমধ্যেই ময়মনসিংহ পৌরসভাকে সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত করায় এই বাজেটই পৌরসভার শেষ বাজেট। এবার ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের বাজেটে একশত ষাট কোটি ৮৯ লাখ ৭৪ হাজার ০৪৪ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষনা করা হয়েছে। সভায় মেয়র টিটু জলাবদ্ধতা ও যানজট সম্পর্কে আরো বলেন, দীর্ঘ সময়ে শহরের মধ্য দিয়ে চলমান চারটি খাল ভরাট হয়ে যাওয়া এবং পরিকল্পনা মাফিক ড্রেন নির্মাণ না করায় কাচা ড্রেন দিয়ে এক সময় পানি নিস্কাশন হতো। বর্তমান পরিষদ দায়িত্ব গ্রহরে পর থেকে ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নে পরিকল্পনাগ্রহণ করে মাস্টার প্ল্যান অনুসারে প্রায় ৭০ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণসহ নতুন করে আন্ডার পাস নির্মাণের মাধ্যমে শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে নদীতে পানি নামানোর কাজ চলছে। এছাড়া নতুন এলাকায় পাকা ড্রেন নির্মাণ করা হচ্ছে। চলমান মেরামত ও নির্মাণ কাজ শেষ হলে নাগরিক সুবিধা অনেকটা বৃদ্ধি পাবে। এছাড়া ২০ কিলোমিটার ফুটপাত নির্মাণ করা হয়েছে। তিনি যানজট সম্পর্কে বলেন, ময়মনসিংহ শহরের মধ্যে রেলওয়ে জংশন রয়েছে। জংশন কেন্দ্রীক দীর্ঘ রেললাইনে ২৭টি রেলগেইট রয়েছে। এ সকল রেললাইনে প্রতিদিন ৩৯টি যাত্রীবাহি ট্রেন ও মালবাহি ট্রেনসহ প্রায় ৫০টি ট্রেন চলাচল করে। প্রতিটি ট্রেন রেলগেইটগুলোতে কমপক্ষে ১০ মিনিট করে আটকা থাকায় দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে প্রতিদিন কমপক্ষে ১০ ঘন্টারও বেশী সময় যানজট থাকে। এ জন্য তিনি রেললাইন স্থানাস্তরের দাবী জানান । এছাড়া পাটগুদাম ব্রীজ থেকে কালিবাড়ী রাস্তার যানজট নিরসনে নদীর পাড় দিয়ে আরেকটি বিকল্প রাস্তার করা হবে বলেও তিনি বলেন। এ সময় তিনি বলেন, পাটগুদান ব্রীজ থেকে নদীর পাড় হয়ে এ রাস্তাটি ইতিমধ্যেই দরপত্র আহবান করা হয়েছে। অতি দ্রুততম সময়ে এ রাস্তাটির নির্মাণ কাজ করা হবে। এই কাজটি সম্পন্ন হলে শহরে যানজট সিংহভাগ কমে যাবে। তিনি পৌর উন্নয়ন কাজগুলো সঠিকভাবে সম্পন্ন করতে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD