রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:১৩ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
পুনরায় নৌকা মার্কা পেয়ে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সৈয়দ আহমেদ মাষ্টার কেশবপুরে চমক দেখিয়ে ১১টি ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী ঘোষনা নড়াইলে পুলিশ সুপার ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত ও পুরস্কার বিতরণ করেন।এসপি প্রবীর কুমার রায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে ভোঁপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা ১১ মাসে ঝিনাইদহ বিআরটিএ ও ট্রাফিক পুলিশের জরিমানা আদায় আড়াই কোটি টাকা নাচোলে কাগজ সত্যায়িত করতে ৩ কর্মদিবস! নড়াইলে কবিয়াল বিজয়সরকারের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন তানোরে সুজনের শীতবস্ত্র বিতরণ বানারীপাড়ায় আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস পালন বানারীপাড়ায় চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক
আলোকিত ও আদর্শ নারী সমাজকর্মী আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক রিজিয়া রেজা চৌধুরী

আলোকিত ও আদর্শ নারী সমাজকর্মী আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক রিজিয়া রেজা চৌধুরী

এম মহিউদ্দীন চৌধুরী,দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি।
উদার ও সাদা মনের মানুষের মর্যাদায় তিনি অন্যদের জন্য দৃষ্টান্ত। যার শতভাগ প্রমাণ মেলে তার কাজ-কর্মে। সমাজকর্মে যার অবদান অস্বীকার করার কোনো জো নেই। এমনই একজন সমাজকর্মী চট্টগ্রাম-১৫ আসনের এমপি উন্নয়নের কান্ডারী প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিনের সুযোগ্য সহধর্মিনী রিজিয়া রেজা চৌধুরী। সাতকানিয়া-লোহাগাড়া উপজেলায় ইতোমধ্যে তিনি ভালো কাজের জন্য আলোকিত এক মহীয়সী নারী হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছেন। উপজেলার অজপাড়াগাঁয়ের নারী জাতিকে শিক্ষিত করে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার সিঁড়ি নির্মাণ করে চলেছেন। তিনি নারী শিক্ষা ও তাদের উন্নতি অগ্রগতির কাজে সর্বদা ব্যস্ত থাকেন। নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে তিনি নিজ উদ্যোগে সাতকানিয়া-লোহাগাড়া উপজেলায় গড়ে তুলেছেন ‘সামাজিক ব্যাধি নির্মুল ফোরাম’ নামে একটি সামাজিক সংগঠন। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা যখন তার ভাল কাজে অন্তর জ্বালা নিয়ে অস্থির ঠিক সেই মূহুর্তে তিনি একের পর এক সেবামূলক কাজের মাধ্যমে খ্যাতি লাভ করে যাচ্ছেন। তিনি মনে করেন-মানুষ সামাজিক জীব। সমাজের বিকাশের সঙ্গে মানুষের বিকাশ ওতপ্রোতভাবে জড়িত। সমাজ অগ্রসর হলে ব্যক্তিও উন্নতি লাভ করে, আর সমাজ পিছিয়ে গেলে ব্যক্তিও পিছিয়ে পড়ে। এমন বোধ নিয়ে কাজ করতে গিয়ে তিনি এক প্রকার নাজুক পরিস্থিতিতে পতিত হন। সকল সামাজিক প্রতিবন্ধকতা তার সম্মুখে এসে পড়ে। কিন্তু তিনি হাল ছাড়ার মানুষ নন, হাল ছাড়েননি। সকল ঝড়-ঝাপটা উপেক্ষা করে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে দৃঢ়প্রত্যয়ী হয়ে এগিয়ে যেতে লাগলেন। তার স্বপ্নও সার্থক হয়। অগণিত মসজিদ, মাদরাসা, মন্দির ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আর্থিক সহযোগিতাসহ রাস্তাঘাট উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। লোহাগাড়া-সাতকনিয়ার গ্রামে গ্রামে গড়ে তুলেছেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন আত্মকর্মসংস্থানমূলক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা। অনেকটা জনকল্যাণমূলক কাজ করে যেন নিজেকে আনন্দিত করে তুলতে ভালোবাসেন তিনি। নারী জাগরণের অগ্রদূত রিজিয়া রেজি চৌধুরী নারী প্রগতিশীল, নারী শিক্ষা সমপ্রসারণ, নারী জাতিকে আত্মশক্তিতে বলীয়ান করার অনুপ্রেরণা, সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ডে ও গর্বিত সমাজসেবিকা হিসেবে অবদান রাখার জন্য বিভিন্ন অ্যাওয়ার্ড, উপাধি লাভ করে চলেছেন। এছাড়াও বিভিন্ন এলাকায় গুণীজন সংবর্ধনায় তিনি সংবর্ধিত এবং অসংখ্য প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে তিনি নানান ক্রেস্ট পান ও সংবর্ধিত হন। তিনি মনে করেন- শিক্ষা মানুষের অন্তর্নিহিত শক্তি ও সম্ভাবনাকে জাগ্রত করে। এ দেশের অবহেলিত নারী সমাজ শিক্ষার এ সুফল থেকে বঞ্চিত। ফলে তারা নানাভাবে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছে। নারী জাতিকে এ হীন অবস্থা থেকে মুক্ত হওয়া অত্যন্ত জরুরি। একজন শিক্ষিত নারী কর্মসংস্থানের মাধ্যমে নিজেকে, পরিবারকে, সমাজকে এমনকি পুরো দেশকে বদলে দিতে পারে। এর জন্য চাই সামাজিকভাবে পুরুষের পাশাপাশি নারীদের সমমর্যাদা। আর নারীদের পুরুষের সমমর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য তাদের শিক্ষা অত্যাবশ্যকীয়। এলাকার সচেতন নারীদের মতে কোনো কিছু পাওয়ার লোভে নয় একেবারে নিঃস্বার্থভাবেই নারী কিংবা সমাজ উন্নয়নের কাজে রিজিয়া রেজা চৌধুরী বিরল। এলাকাবাসীর মতে নারী আন্দোলনের পথিকৃত বেগম রোকেয়ার পরে রিজিয়া রেজা চৌধুরীর স্থান হবে এটাই সবার প্রত্যাশা। তার খ্যাতি ছড়িয়ে পড়েছে এলাকা জুড়ে। রিজিয়া রেজার মতো সকল নারী সামাজকর্মী যদি এ রকম সামাজিক দায়িত্ব পালন করেন, তাহলে একদিন নারীর প্রতি সহিংসতা নির্মূল হবে ।

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD