বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৫৭ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
ময়মনসিংহে ওসি কামালের নেতৃত্বে পুলিশের অভিযানে মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেফতার-১৩ জাতীয় তরুণ পার্টি ফুলবাড়িয়া পৌর শাখার আহবায়ক কমিটির অনুমোদন।। কেন্দুয়ায় ধানের পোকা চিহ্নিত করতে ‘আলোক ফাঁদ’ স্থাপন হালুয়ারঘাট-ধারারগাঁও সেতু নির্মাণের দাবীতে বিশাল মানব বন্ধন ও জনসভা ঝিকরগাছার শংকরপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতির জানাজায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা অমিত তারাকান্দায় ৫৩ পূজামন্ডপের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আশ্বাস -ইউএনও’র।। ঝিনাইদহে অফিসিয়ালি তদারকি ছাড়া ৮৮ কোটি টাকার সড়ক নির্মাণ হচ্ছে! নড়াইলে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় এসএসসি পরীক্ষার্থী নিহত নাচোলে তাল গাছের বীজ বপন মহাসংকটে স্বরূপকাঠি সমিতি
রাজশাহী-১ আসনে আওয়মী লীগের ভরসা ফারুক

রাজশাহী-১ আসনে আওয়মী লীগের ভরসা ফারুক

আলিফ হোসেন, তানোর :
রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) ভিআইপি সংসদীয় আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধূরীর ওপরই ফের আস্থা ও ভরসা রাখলেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। চলতি বছরের ১০ জুলাই মঙ্গলবার মুন্ডুমালা মহিলা ডিগ্রী কলেজ মাঠে আয়োজিত সুধি সমাবেশ এবং সমপ্রতি গোদাগাড়ী স্কুল এ্যান্ড কলেজ মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জঙ্গি, মাদক ও সন্ত্রাসবিরোধী স্মরণকালের সর্ববুহত সমাবেশ সাধারণ মানুষের ঢল প্রমাণ করেছে রাজশাহী অঞ্চলে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এখানো ওমর ফারুক চৌধূরীর বিকল্প কোনো নেতৃত্ব গড়ে উঠেনি। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাই তিনিই আবারো আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হচ্ছে এটা প্রায় নিশ্চিত। সমপ্রতি দলের হাইকমান্ড থেকেও তেমনি ঈঙ্গিত দেয়া হয়েছে, কারণ সারাদেশে ১৫১টি আসনে আওয়ামী লীগের সাম্ভব্য প্রার্থীর যে তালিকা প্রকাশ হয়েছে তাতেও এমপি ফারুকের নাম রয়েছে। তবে নিজ দলের কিছু বির্তকিত ও স্বার্থবাজ নেতা অবৈধ সুবিধা লাভের মতলবে বিভিন্ন বগী আওয়াজ দিলেও এই অঞ্চলের সাধারণ মানুষের মধ্যে এমপি ফারুকের এখানো আকাশচুম্বি জনপ্রিয়তা রয়েছে। এদিকে সারাদেশে ১৫১টি আসনের সাম্ভব্য প্রার্থী তালিকায় এমপি ফারুকের নাম থাকার খবরে দীর্ঘদিন পর এমপিমূখী আওয়ামী লীগে ফের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। সমপ্রতি জেলা পরিষদ নির্বাচনে কালো টাকার মোহে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থীর সঙ্গে তথা আওয়ামী লীগের সরঙ্গ বেঈমানি করে গোপণে বিরোধী প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছে। কিনত্ত এমপি ফারুক দলের সঙ্গে বেঈমানি করেননি শুরু থেকে শেষ পর্যন- দলীয় প্রার্থীর জন্য কাজ করে গেছেন কোনো লোভ-লালসায় তাকে বিচ্যুত করতে পারেনি।
এদিকে চলতি বছরের ২৩ জুন শনিবার ও ৩০ জুন শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিতসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এমপিদের তৃণমূলের সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিকে বিশেষ বর্ধিতসভায় সব জল্পনা-কল্পনা, আলোচনা-সমালোচনার অবসান ঘটিয়ে রাজশাহী-১ ‘তানোর-গোদাগাড়ী’ সংসদীয় আসনে ফের এমপি ফারুক চৌধূরীকেই আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী করার ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে বলে বৈঠকের একাধিক সূত্র এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছে। আর বিশেষ বর্ধিতসভার পর পরই তানোর-গোদাগাড়ী নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নাটকিয় পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে। এতোদিন যারা এমপি ফারুকের বিকল্প নেতৃত্বের সন্ধানে এদিক-ওদিক ছোটাছুটি করে বস- সময় পার করেছেন। বিশেষ বর্ধিত সভার পরে তারাও বুঝতে পেরেছেন এখানে এমপি ওমর ফারুক চৌধূরীর কোনো বিকল্প নাই, তাই তারাও সব মান-অভিমান, ক্ষোভ-অসনে-াষ ভূলে দলীয় স্বার্থকে প্রধান্য দিয়ে এমপির প্রতি ঝুকছেন, আবার এমপিও তাদের সাদরে গ্রহণ করছেন। ফলে তানোরে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে দীর্ঘদিন বিরাজমান মানঅভিমান ও ঐক্যর প্রশ্নে বরফ গলছে। এদিকে এখন তৃণমূলের নেতাকর্মীরাও এটা বুঝতে সক্ষম হয়েছেন পাওয়া-না পাওয়া নিয়ে তাদের মধ্যে মান-অভিমান থাকবে সেটাই স্বাভাবিক, আবার এই অঞ্চলে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে ফারুক চৌধূরীর বিকল্প নাই এটাও চিরন-ন সত্য। কারণ বির্তকের খাতিরে এমপি ফারুকের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ যদি সত্যও ধরে নেয়া যায় তার পরেও আওয়ামী লীগে এখানে তার বিকল্প কোনো নেতৃত্ব নাই। আর এসব বিবেচনায় তৃণমূলের নেতা ও কর্মী-সমর্থকগণ ফের এমপি মূখী হয়েছেন। আর এতেই এমপিবিরোধী শিবিরের রণেভঙ্গ হয়েছে।জানা গেছে, রাজশাহী-১ আসনে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের তৃণমূলে নেতৃত্বের প্রতিযোগীতা, ক্ষমতার ভাভাভাগী ও আধিপত্য বিস-ার নিয়ে কিছুটা অসনে-াষ সৃষ্টি হয়। কিনত্ত বিশেষ বর্ধিত সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে জাতীয় ও দলীয় স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে, ব্যক্তি স্বার্থ উপেক্ষা করে নেতাকর্মীরা ফের ঐক্যবদ্ধ হতে শুরু করেছে। বিশেষ বর্ধিত সভার পরপরই আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নীতিনির্ধারক ও জৈষ্ঠ নেতারা তৃণমূলের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ, গণসংযোগ, বর্ধিত ও কর্মীসভা করে ব্যস- সময় পার করছেন। ফলে দীর্ঘদিন পর এলাকায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকগন আবারও চাঙ্গা হয়েছে উঠেছে। রাজনীতিতে হয়েছে নাটকীয় পরিবর্তন দলীয় শক্তি দিন দিন ক্রমেই জোরদার হচ্ছে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন তাদের দলীয় কর্মকান্ড জোরদার করেছে। ফলে আবারো এমপি ফারুক চৌধূরীকে ঘিরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সৃষ্টি হয়েছে গণজোয়ার। তানোর-গোদাগাড়ীর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে এখন বইছে ঐক্যর হাওয়া। আওয়ামী লীগের ঐক্যের প্রশ্নে নেতাকর্মীদের মধ্যে দীর্ঘদিনের বিরাজমান মান-অভিমান আর ক্ষোভ-অসনে-াসের বরফ গলতে শুরু করেছে। দীর্ঘদিনের বিবাদমান ভিন্ন ধারার নেতাকর্মীরাই এখন ঐক্যের অপরিহার্যতা অনুধাবন করে পরস্পরকে কাছে টানতে শুরু করেছে নেতাকর্মীদের দাবী অতীতের বিভেদ ভুলে দলকে ঐক্য ও ভ্রাতৃত্বের সুদৃঢ় ভিত্তির ওপর দাঁড় করাতে হবে। কারণ যে যাই বলুক এখানে এমপি ফারুকের কোনো বিকল্প নাই এটা নিশ্চিত। আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ হওয়ায় এই অঞ্চলে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নাটকীয় পরিবর্তন ও ফিরেছে প্রাণচাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে গণজোয়ার। আবার রাজনৈতিক দূরদর্শীতা সম্পন্ন বিচক্ষন, সহবাস’ান, কর্মী-জনবান্ধব ও সুষ্টিশীল রাজনৈতিক নেতা হিসেবে দলমত নির্বিশেষে সব শ্রেণী ও পেশার মানুষের কাছে এখানো সমান সমাদৃত এমপি ওমর ফারুক চৌধূরী। দেশের প্রচলিত রাজনৈতিক ধারায় থাকলেও তিনি কখনও কোনো লোভ লালসার স্রোতে গা ভাসিয়ে দেননি। এসব বিবেচনায় আওয়ামী লীগ আবারো তার ওপরই আস’া রেখেছেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের এক জৈষ্ঠ নেতা বলেন, এমপি ফারুক চৌধূরীর অনেক কাজের মধ্যে কিছু কাজ নিয়ে বিতর্ক থাকতে পারে, আবার তিনি হয়তো সকলের সব আশা পুরুণ করতে পারেননি এটা যেমন সত্য, তেমনি সত্য নির্বাচনী এলাকার কোনো সাধারণ মানুষ তার দ্বারা ক্ষতিগ্রস- হয়নি। অন্যদিকে বিএনপির দূর্গ রাজশাহী অঞ্চলে আওয়ামী লীগের আজকের যে জয়জয়কার তার প্রায় পুরো অবদানও এমপি ফারুক চৌধূরীর এটা অস্বীকার করার কোনো সুযোগ নাই। এছাড়াও ফারুক চৌধূরীর মতো হেভিওয়েট ও হাইপ্রোফাইল নেতাকে সরিয়ে তার স্থান পুরুণের মতো বিকল্প কোনো নেতৃত্ব আওয়ামী লীগে এখানো গড়ে উঠেনি তার কোনো বিকল্প নাই। এসব বিবেচনায় দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার প্রতিই আবারো আস্থা ও ভরসা রাখার ইঙ্গিত দিয়েছেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD