মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৪:৩৯ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
আজ শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আশুলিয়ায় কুকুরের মাংস দিয়ে বিরায়ানী বিক্রির অভিযোগে ১ জন আটক পাইকগাছা থানার আসাদুজ্জামান ও মোঃ নাসির উদ্দিন খুলনা জেলা শ্রেষ্ট কর্মকর্তা নির্বাচিত যে কোন দুর্যোগে সিপিপি’র কর্মীরা জীবন বাজী রেখে মানুষের কল্যানে কাজ করেন- এমপি- বাবু খুলনার দক্ষিঞ্চালে মৌসুমের শুরুতেই ভাইরাসে মরে যাচ্ছে চিংড়ি মাছ; দুশ্চিন্তায় চাষিরা বিরামপুরে বোরো ধান সংগ্রহে উন্মক্ত লটারির মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন ঝিনাইদহে মেয়র প্রার্থীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার প্রতিবাদে শান্তি মিছিল নড়াইলে ডিবি পুলিশের অভিযানে ফেনসিডিল সহ আটক ১ বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের শুভ উদ্ভোধন ধামইরহাটে র‌্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ ব্যবসায়ি আটক
রাজশাহীর তানোরে হাজী একতার ওয়াকফ্‌ সম্পত্তি তছরুপ

রাজশাহীর তানোরে হাজী একতার ওয়াকফ্‌ সম্পত্তি তছরুপ

আলিফ হোসেন. তানোর :
রাজশাহীর তানোরের মুন্ডুমালা পৌর এলাকার চুঁনিয়াপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাবের পুত্র এন-াজ আলীর বিরুদ্ধে চুঁনিয়াপাড়া মৌজায় হাজী একতার আলী ওয়াকফ্‌ এস্টেটের সম্পত্তি অবৈধ দখলে রেখে তছরুপ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। চলতি বছরের ১৪ জুলাই শনিবার এলাকাবাসি বাদি হয়ে বাংলাদেশ ওয়াকফ্‌ প্রশাসক, ধর্ম মন্ত্রণালয় ও দূর্দীতি দমন কমিশনে (দুদুক) লিখিত অভিযোগ করেছেন। অথচ এর আগেও ওয়াকফ্‌ সম্পত্তি তছরুপের ঘটনায় বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসনের কাছে একাধিকবার লিখিত অভিযোগ দিলেও কর্তৃপক্ষের টনক নড়েনি। প্রায় কয়েক কোটি টাকা মূল্যের ওয়াকফ্‌ সম্পত্তি অনিয়ম ও দূর্ণীতির মাধ্যমে তছরুপের অভিযোগ থাকলেও তছরুপকারীদের বিরুদ্ধে রহস্যজনক কারণে কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস’া গ্রহণ না করায় এলাকাবাসীর মধ্যে চাঁপাক্ষোভ ও চরম অসনে-াষ বিরাজ করছে। সরেজমিন অনুসন্ধান করলেই এসব অনিয়ম ও দূর্নীতির সত্যতা পাওয়া যাবে। গ্রামবাসি জানান ১৪ জুলাই শনিবার মুন্ডুমালা পৌর কার্যালয়ে উভয় পক্ষকে নিয়ে সালিশ বৈঠকও হয়েছে তবে কোনো সমাধান হয়নি।
জানা গেছে, তানোরের মুন্ডুমালা পৌর এলাকার চুঁনিয়াপাড়া গ্রামের জামে মসজিদের নামে ১২৭ বিঘা ও স্কুলের নামে ৩৮ বিঘা চার ফসলি জমি ওয়াকফ্‌ করে গেছেন হাজী একতার আলী। আবার তানোরের কুঠিপাড়া জামে মসজিদ ও গোল্লাপাড়া বাজার জামে মসজিদের উন্নয়নে অর্থ ব্যয় করতে বলা হয়েছে। এদিকে হাজী একতার আলী ওয়াকফ্‌ এস্টেটের মোত্তাওয়ালী নিয়োগে সুনিদ্রিষ্ট শর্ত দেয়া হয়েছে। এসব শর্তের মধ্যে রয়েছে প্রথমত মোত্তাওয়ালীকে ইসলাম ধর্মভীরু তথা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় ও ইসলাম প্রচার করতে হবে, দ্বিতীয় প্রতিবছর মোত্তাওয়ালীকে গ্রামের বিজ্ঞ ব্যক্তিদের নিয়ে গঠিত দরবারে আয়-ব্যয়ের হিসাব-নিকাশ দিতে হবে ও মুনাফার টাকায় ওয়াকফ্‌ এর নামে সম্পত্তি কিনতে হবে, তৃতীয় ওয়াকফ্‌ সম্পত্তি কোনো অবস’াতেই বন্ধক বা বিক্রি করা যাবে না, চতুর্থত গ্রামের কোনো অহায় ব্যক্তির কন্যা দানে সহায়তা ও এতিমের লেখা পড়ার দায় নিতে হবে ইত্যাদি শর্ত রয়েছে। কিনত্ত মোত্তাওয়ালী এন-াজ আলী কোনো শর্তই পূরুণ করেননি।
স’ানীয় বাসিন্দারা জানান, এন-াজ আলী নিয়ম লঙ্ঘন করে ওয়াকফ্‌ সম্পত্তি বন্ধক ও হিসাব-নিকাশ না দিয়ে লাখ লাখ টাকা তঝরুপ করে চলেছে। তারা বলেন, মসজিদের নামে ১২৭ ও স্কুলের নামে ৩৮ বিঘা চার ফসলী জমি থাকলেও এখানো মসজিদ ঘরের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়নি স্কুলেরই একই অবস’া। ওয়াকফ্‌ প্রশাসনের একশ্রেণীর কর্মকর্তার যোগসাজশে একতার আলী ওয়াকফ্‌ের প্রায় ১৬৫ বিঘা সম্পত্তি এন-াজ আলী বছরের পর বছর ধরে তছরুপ করে চলেছেন। অথচ এন-াজ আলীর এখন এক ছটাক ফসলী জমি না থাকলেও প্রায় কোটি চাকা ব্যয়ে দৃষ্টিনন্দন বাড়ি নির্মাণ ও মোটরবাইক কিনে বেশ বিলাসী জীবনযাপন করছেন। এব্যাপারে জানতে চাইলে হাজী একতার আলী ওয়াকফ্‌ এস্টেটের মোত্তাওয়ালী এন-াজ আলী এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি সব নিয়মকানুন মেনেই মোত্তাওয়ালীর দাযিত্ব পালন করে চলেছেন। এব্যাপারে চুঁিনয়াপাড়া স্কুলের প্রধান শিক্ষক লিয়াকত আলী বলেন, মোত্তাওয়ালী হবার পর থেকে এন-াজ আলী একটি টাকারও কোনো হিসেব স্কুল কর্তৃপক্ষকে দেননি।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD