শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:৩১ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
বরিশাল জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড: তালুকদার মো: ইউনুস করোনায় আক্রান্ত বানারীপাড়া- উজিরপুরে সাংসদ রুবিনা মীরার কম্বল বিতরন লস্করপুরে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক সারাদেশে এমএলএম প্রতারণার নতুন ফাঁদ-হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা জেলা প্রশাসক ও উপজেলা প্রশাসন পরিদর্শন করলেও আশুলিয়ায় নয়নজুলি খাল উদ্ধার হয়নি কুইজ প্রতিযোগিতায় প্রথম হলেন ওসি পুত্র নিহান বানারীপাড়ায় নিষিদ্ধ বেহুন্দি জাল জমা দিয়ে জেলে পরিমলের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট নওগাঁ জেলা শাখার সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ধামইরহাটে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ যুবক গ্রেফতার শাজাহানপুরে করণা আক্রান্তদের রোগমুক্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত
রাজশাহীবাসি মেয়র হিসেবে লিটনকেই দেখতে চায়

রাজশাহীবাসি মেয়র হিসেবে লিটনকেই দেখতে চায়

আলিফ হোসেন, তানোর :
রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি. আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সাবেক সিটি মেয়র, প্রবীণ, ত্যাগী-নিবেদিতপ্রাণ ও বর্ষিয়ান রাজনৈতিক নেতা এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে আবারো রাজশাহী সিটি মেয়র হিসেবে দেখতে চাই রাজশাহী মহানগরীর দলমত নির্বিশেষে সকল শ্রেণী-পেশার মানুষ। রাজশাহী মহানগরীর সাধারণের অভিমত, মহানগরীর চেকসই উন্নয়সের সঙ্গে তারা সম্পৃক্ত থাকতে চাই ও দেখতে চাই দৃশ্যমান উন্নয়ন। আর এজন্য তারা যেকোনো মূল্য এবার লিটনকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত করে গত বারের ভূলের প্রায়শ্চিত্ত করতে চাই। দীর্ঘদিন পরে হলেও তারা বুঝতে পেরেছে রাজশাহীর টেকসই উন্নয়ন ও বদলে দিতে লিটনের কোনো বিকল্প নাই। কারণ বিএনপি দলীয় মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল এক্ষেত্রে প্রায় পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। এমনকি নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহণ বা উন্নয়ন কাজ করাতো দুরের কথা মেয়র লিটনের রেখে যাওয়া অসমাপ্ত অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হয়েছেন। এছাড়াও বিএনপির অভ্যন-রীণ কোন্দল ভোটের মাঠে ইতমধ্যে বুলবুলকে অনেক পিছিয়ে দিয়েছে। রাজশাহীবাসি মনে করেন, ইতিপূর্বে তারা লিটনকে মেয়র পদে নির্বাচিত না করে যে ভূল করেছেন,এবার তাকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী করে সেই ভূলের প্রায়শ্চিত্ত করতে চাই। এছাড়াও এবার লিটনকে বিহয়ী করতে শুধু রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ নয় রাজশাহী অঞ্চলের পুরো আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নেমেছেন পাশাপাশি আবার জাতীয় পার্টিও সমর্থন দিয়েছে। ফলে আওয়ামী লীগের বিশাল ভোট ব্যাংক ও ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগের বিপুল কর্মী বাহিনীকে কাজে লাগাতে পারলে লিটনের বিজয়ী হওয়া প্রায় নিশ্চিত। এদিকে গণসংযোগ ও প্রচার-প্রচারণায় লিটন অন্যদের থেকে অনেক এগিয়ে এবং পচ্ছন্দের শীর্ষে রয়েছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামরুজ্জামান হেনার-এর সুযোগ্য পূত্র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন তাঁর বাবার দেখানো পথ থরেই রাজনীতি করে চলেছেন। দেশের প্রচলিত রাজনৈতিক ধারায় থাকলেও তিনি কখনই লোভ লালসার স্রোতে গা ভাসিয়ে দেননি। আবার অবৈধ সম্পদ অর্জনের ব্যাপক সুযোগ থাকার পরেও তিনি কখনই সেই পথে পা বাড়ায়নি। দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনের অনেক উঙ্খান-পতন তিনি দেখেছেন, কিনত্ত তিনি কখনই তাঁর আদর্শ থেকে বিট্যুত হননি। এমনকি ৮০.র দশকে স্বৈরাচার এরশাদ সরকার তাকে মন্ত্রী করার প্রস্তাব দিয়েও দলে টানতে ব্যর্থ হয়েছেন। তিনি তার বাবার দেখানো পথে ও জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে রাজনীতি শুর্ব করেছেন এখানো সেই পথেই রয়েছেন। রাজনীতিতে অনেক ঝড়-ঝাপটা ও শত প্রতিকুলতা মোকাবেলা করে তিনি এখানো আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে চলেছেন। কোনো লোভ-লালসা তাকে তার আদর্শ থেকে বিন্দুম্‌ত্র বিচ্যুত করতে পারেনি। লিটন দেশে গণতন্ত্র ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে তিনি থেকেছেন সামনের সারিতে দিয়েছেন সফল নেতৃত্ব। দল ও জনগণের অধিকার রক্ষার তিনি একজন নিবেদিতপ্রাণ, কর্মী ও জনবান্ধব এবং পরীক্ষিত ও লড়াকু সৈনিক। প্রচলিত রাজনৈতিক ধারায় থাকলেও লোভ লালসার স্রোতে গা ভাসিয়ে দেননি। তিনি তৃণমুল নেতাকর্মীদের সঙ্গে থেকে এখনও চালিয়ে যাচ্ছেন সংগ্রাম। এই সংগ্রাম রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন সূচনার সংগ্রাম। তিনি রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগকে অর্থ নয় মেধার কাছে জিম্মি রাখতে চান। লিটন বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকারের উন্নয়ন ধারাকে এগিয়ে নিতে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে নিয়ে নিরলস ভাবে কাজ করতে চান।
জানা গেছে, রাজশাহী সিটিকর্পোরেশনের মেয়র হিসেবে এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন রাজশাহী মহানগরীর ড্রেন, গ্যাস, বিদ্যুৎ, সড়ক যোগাযোগ, পদ্মা পাড়সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে টেকসই ও অপ্রত্যাশিত দৃশ্যমান উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পন্ন করেছেন। রাজশাহী সিটিকর্পোরেশনের ইতিহাসে অনেকটা বিরল তার আগে কেউ কখনই তাঁর অর্ধেক উন্নয়ন কাজ করতে পারেননি। আর বিষয়টি তার পরাজয়ের পর রাজশাহীর সাধারণ মানুষ বুঝতে পেরেছেন। এদিকে রাজশাহী মহানগরীর উন্নয়নের স্বার্থে এবার দলমত নির্বিশেষে সাধারণ মানুষ লিটনকে মেয়র দেখার অধির অপেক্ষায় রয়েছেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। এব্যাপারে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহী মহানগরীকে তিনি বিশ্বের দরবারে মডেল নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চান। তিনি বলেন, শিল্পায়ন, কৃষি ভিত্তিক শিল্প প্রতিষ্ঠান, কুটির শিল্প স’াপন, বেকার সমস্যার সমাধান ও সাধারণ মানুষের কর্মসংস’ন সৃষ্টির পাশপাশি রাজশাহী ডিজিটাল নগরীতে পরিনত করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD