মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৪:৩০ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
আজ শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আশুলিয়ায় কুকুরের মাংস দিয়ে বিরায়ানী বিক্রির অভিযোগে ১ জন আটক পাইকগাছা থানার আসাদুজ্জামান ও মোঃ নাসির উদ্দিন খুলনা জেলা শ্রেষ্ট কর্মকর্তা নির্বাচিত যে কোন দুর্যোগে সিপিপি’র কর্মীরা জীবন বাজী রেখে মানুষের কল্যানে কাজ করেন- এমপি- বাবু খুলনার দক্ষিঞ্চালে মৌসুমের শুরুতেই ভাইরাসে মরে যাচ্ছে চিংড়ি মাছ; দুশ্চিন্তায় চাষিরা বিরামপুরে বোরো ধান সংগ্রহে উন্মক্ত লটারির মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন ঝিনাইদহে মেয়র প্রার্থীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার প্রতিবাদে শান্তি মিছিল নড়াইলে ডিবি পুলিশের অভিযানে ফেনসিডিল সহ আটক ১ বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের শুভ উদ্ভোধন ধামইরহাটে র‌্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ ব্যবসায়ি আটক
জামালপুরে রেড ক্রিসেন্টের একমাত্র হাসপাতালের করুন অবস্থা

জামালপুরে রেড ক্রিসেন্টের একমাত্র হাসপাতালের করুন অবস্থা

সৈকত আহমেদ বেলাল, জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরে রেড ক্রিসেন্টের একমাত্র হাসপাতালটি অত্যন্ত নাজুক অবস্থায় চলছে। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ১৯৭২ সালে জেলার ইসলামপুরের মোশারফগঞ্জে জমিলা মোশারফ রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করে। সাবেক ভূমি প্রতিমন্ত্রী প্রয়াত রাশেদ মোশারফের প্রচেষ্ঠায় একটি একতলা ভবন নির্মাণ করা হয়। আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রয়াত সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত ভবনটির উদ্বোধন করেন। জামালপুরে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি প্রতিষ্ঠিত একমাত্র হাসপাতালের ডাক্তার, নার্স, টেকনিশিয়ানসহ কোন প্রশাসনিক কর্মকর্তাও নেই। ফলে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। র্বমানা পারভীন নামের এক কমিউনিটি মিড ওয়াইফ (সিএমডাবিৱও) একাধারে হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সদস্য সচিব, ডাক্তার, নার্স ও প্যাথলজিস্ট হিসাবে চিকিৎসা ও প্যাথলজিক্যাল কাজ করছেন।
র্বমানা পারভীন জানান, আমি কোন ডাক্তার না। নার্সিং‘র উপর দেড় বছরের একটি প্রশিৰণ করে বিশ টাকা ফি নিয়ে সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছি। এখানে সে ও একজন নৈশপ্রহরী ছাড়া কোন স্টাফ নেই। তাদের আবার বেতনও নেই। হাসপাতালের একটি এফডিআরের লভাংশ থেকে তাদের সামান্য ভাতা দেওয়া হয়।
এলাকাবাসী জানান, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি সারা বিশ্বে সাহায্য সহযোগিতা করলেও জামালপুরে তাদের একমাত্র হাসপাতালের দিকে কোন নজর নেই।
জামালপুরে রেড ক্রিসেন্টের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামাল উদ্দিন জানান, হাসপাতালটি একটি প্রকল্পের আওতায় করা হয়েছে। প্রকল্প শেষ হওয়ায় এটিকে স’ানীয় কমিটির নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি বলেন, রেড ক্রিসেন্টের প্রধান কার্যালয় থেকে সরাসরি এ হাসপাতাল নিয়ন্ত্রণ করা হয়। বর্তমানে রেড ক্রিসেন্টের নাজুক অবস্থার কারণে ওখানে ডাক্তার বা অন্য স্টাফ নিয়োগ সম্ভব হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD