মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৫:৫৭ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের ভোট স্থগিত গাজীপুরে চোলাই মদ বিক্রির সময় নারীসহ গ্রেফতার দুই অপরাধ ধামাচাপা দিতে ৩৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সাংবাদিক সম্মেলন নবীগঞ্জে বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার চালকসহ দুইজন নিহত কুসিক নির্বাচনে প্রার্থী হলেন সিআইপি এমরান খান আজ শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আশুলিয়ায় কুকুরের মাংস দিয়ে বিরায়ানী বিক্রির অভিযোগে ১ জন আটক পাইকগাছা থানার আসাদুজ্জামান ও মোঃ নাসির উদ্দিন খুলনা জেলা শ্রেষ্ট কর্মকর্তা নির্বাচিত যে কোন দুর্যোগে সিপিপি’র কর্মীরা জীবন বাজী রেখে মানুষের কল্যানে কাজ করেন- এমপি- বাবু খুলনার দক্ষিঞ্চালে মৌসুমের শুরুতেই ভাইরাসে মরে যাচ্ছে চিংড়ি মাছ; দুশ্চিন্তায় চাষিরা
ঝালকাঠীতে তৃতীয় শ্রেনীর মাদ্রসা ছাত্রী ধর্ষনের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদন্ড

ঝালকাঠীতে তৃতীয় শ্রেনীর মাদ্রসা ছাত্রী ধর্ষনের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদন্ড

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠী রাজাপুরে তৃতীয় শ্রেনীর এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে মিজান লস্কর (২৮) নামে এলাকার এক বখাটে যুবককে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। সোমবার বিকেল ৩ টায় ঝালকাঠি জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ইখতিয়ারুল ইসলাম মল্লিক এ রায় প্রদান করেন। একই সাথে আসামীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ২ মাসের কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেছেন। ধর্ষক মিজান উপজেলার মঠবাড়ি গ্রামের মানিক লস্করের পুত্র।
আদালত ও মামলা সূত্রে জানাযায়, ঘটনার সময় রাজাপুর উপজেলার মঠবাড়ি গ্রামের মোহাম্মদিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৯ বছর বয়সী তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী ছিল। আসামী মিজান লস্কর মাদ্রাসায় আসা-যাওয়ার পথে ধর্ষিতা শিশুটিকে প্রায়শই উত্যাক্ত করত। ২০১৪ সনের ১০ আগষ্ট দুপুরে মাদ্রাসা থেকে বাড়ীতে ফেরার সময় ল্যম্পট মিজান তার পথ রোধ করে। তাকে কৌশলে পার্শ্ববর্তী একটি মুরগীর খামারের মধ্যে নিয়ে যায়।
সেখানে মুরগীর খামারের শৌচাগারে ডুকিয়ে ধর্ষক মিজান ছাত্রীটিকে ধর্ষন করলে রক্তাক্ত জখম হয়। পরে ছাত্রীটির ডাক চিৎকারে এলাকাবাসি তাকে ঘটনাস্থল থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঘটনার দিন ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মিজানসহ ২ জনকে আসামী করে রাজাপুর থানায় নারী ও শিশু আইনে ধর্ষন মামলা দায়ের করে।
রাজাপুর থানার উপপরিদর্শক মিলন কুমার ঘোষ মামলার তদন্ত শেষে ২০১৪ সালে ১৬ নভেম্বর আদালতে মিজানকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করে। ২০১৫ সনের ১৭ ফেব্রুয়ারী আদালত আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে। মামলায় আদালত ১৬ জন স্বাক্ষির স্বাক্ষ্য প্রমানান্তে এ রায় প্রদান করেন।
রায় ঘোষনা সময় আসামী মিজান লস্কর কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিল। রাষ্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন সরকারি কৌশলী বিজ্ঞ পিপি এড. আব্দুল মান্নান রসুল। আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন প্রবীন আইনজীবী এড. আব্দুর রশিদ সিকদার।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD