মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
তিতাস গ্যাসের অবৈধ সংযোগ দিয়ে জমজমাট বাণিজ্য-প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা সুজানগরে খালেদা জিয়া সহ কেন্দ্রীয় অন্যান্য নেতাদের রোগ মুক্তি কামনা করে দোয়া পাইকগাছায় পরিকল্পিত উপায় বাগদা চিংড়ি ও ধান চাষের লক্ষে মত বিনিময় সভা। পাইকগাছায় নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠনের পক্ষ থেকে পঙ্গু আঃ খালেককে সিঙ্গার সেলাই মেশিন বিতরণ পাইকগাছার কপিলমুনিতে দু’টি গ্রুপের পৃথক ভাবে রায় সাহেবের ৮৮তম তিরোধান দিবস পালিত সুজানগরে উপহারের ঘর পরিদর্শন করলেন পুলিশ সুপার সুজানগরে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুলিশ সুপারের শীতবস্ত্র বিতরণ তানোরে রাজশাহী জেলা সমিতির শীতবস্ত্র বিতরণ সেলাই দক্ষতা প্রশিক্ষণ ও সেলাই মেশিন বিতরণ কার্যক্রম সভাপতি মানিক এবং সম্পাদক শাহজাহান বানারীপাড়ায় নতুনমুখের সম্মেলন অনুষ্ঠিত
গোপালগঞ্জে জমে উঠেছে ঈদ বাজার : মার্কেটে ছুটছে সব শ্রেণী পেশার মানুষ

গোপালগঞ্জে জমে উঠেছে ঈদ বাজার : মার্কেটে ছুটছে সব শ্রেণী পেশার মানুষ

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : ঈদের দিন যতই এগিয়ে আসছে ততই গোপালগঞ্জে জমে উঠছে ঈদের বাজার। পরিবার-পরিজনদের জন্য পোশাক কিনতে বাজারে আসতে শুরু করেছেন বিভিনś শ্রেণী পেশার ক্রেতারা। বাজারে নানা ডিজাইনের পোশাক থাকলেও দেশী ও ভারতীয় সুতি কাপড়ের পোশাক দখল করে নিয়েছে ঈদের বাজার। এবারের ঈদে পোশাকের দাম গত বছর থেকে তুলনা মুলক বেশি ক্রেতারা এমন অভিযোগ করলেও ব্যবসায়ীরা বলছেন অত্যাধুনিক ডিজাইনের পোশাক হওয়ায় দামও একটু বেশী।
জেলা শহরের বিভিনś মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে ঈদে নতুন পোশাক দিতে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বিপণী বিতান গুলোতে ছুটছে সব শ্রেণী পেশার মানুষ। দ্রব্যমূল্যের উর্দ্বগতির কারণে আয়ের সাথে মিল রেখে কেনাকাটা করছেন ক্রেতারা। তবে প্রতিটি দোকানে পুরুষের চেয়ে মহিলা ক্রেতার সংখ্যা বেশি। শুধু বড়রাই নয় পছন্দ মত পোশাক কিনতে শিশুদের নিয়ে দোকানে ভিড় করছেন তাদের মা-বাবা।
এবারের ঈদে নতুনত্বের ছোঁয়া এসেছে বাজারে। দোকান গুলোতে রাখা হয়েছে নতুন নতুন ডিজাইনের নানা রঙের পোশাক। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে তৈরি পোশাকের বিপণী বিতানে রকমারি পোশাক শোভা পা”েছ। এসব পোশাকের পাশাপাশি নিত্য নতুন জুতা-স্যান্ডেলের প্রতি চাহিদা রয়েছে ছেলে-মেয়ে উভয়ের। তবে দামের দিক থেকে কিছুটা সাশ্রয় আর আরামদায়ক হওয়ায় এসব ক্রেতার প্রথম পছন্দই দেশী সুতি ড্রেস।
এবার ঈদে বিক্রেতারা নতুন ডিজাইনের অজুহাত দেখিয়ে পণ্যের দাম ই”ছামত বাড়া”েছ বলে অনেক ক্রেতার অভিযোগ। বাড়তি দামের কারণে ছেলে-মেয়েদের চাহিদা পূরণ করতে মধ্যবিত্ত ও নি¤ś-বৃত্ত পরিবার গুলো হিমশিম খেতে হ”েছ।
এবারের ঈদে বাজারে নরমাল, নবাব, প্রিন্ট, বুটিক ও হাতে কাজ করাসহ বাহারি ডিজাইনের নানা বৈচিত্র্যের পাঞ্জাবী বেশি বিক্রি হ”েছ। ঈদ উৎসবে অন্যান্য পোশাকের সাথে থাকা চাই পাঞ্জাবী। পাঞ্জাবীর পাশাপাশি তরুণদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে ফিটিং হাফ শার্ট, ফুল শার্ট, শর্ট পাঞ্জাবী, জিন্স প্যান্ট, চায়না গ্যাবাডিন, ফরমাল প্যান্ট, টি-শার্ট, ফরমাল শার্ট, শেরওয়ানী প্রভৃতি।
অন্যদিকে মেয়েদের জন্য নামি-দামি ঈদের পোশাকের ছড়াছড়ি রয়েছে বড় বড় বিপণী গুলোতে। এবারের ঈদে মেয়েদের চাহিদার মধ্যে ল্যাহেঙ্গা, লং, ফ্লোটার্স। এ ঈদে প্রকার ভেদে লেহেঙ্গা এক হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকায় বিক্রি হ”েছ। তবে গরম আর দামের দিক থেকে কিছুটা সাশ্রয় হওয়ায় ক্রেতাদের প্রথম পছন্দই দেশী সুতি থ্রি পিস, জামদানি, টাঙ্গাইল ও সুতি জামদানী শাড়ির। শুধু বড়রাই নয় পছন্দ মত পোশাক কিনতে মা-বাবার সাথে দোকানে ভিড় করছে শিশুরাও। পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে অনেকে বেল্ট, নানা রঙের জুতা-স্যান্ডেল, জুয়েলারি এবং কসমেটিকসের কিনছেন।
গোপালগঞ্জ শহরের থান কাপড় ও গার্মেন্টসের দোকান গুলোতে লেগে রয়েছে উপচে পড়া ভিড়। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলছে কেনাকাটা। ক্রেতারা বিভিনś দোকান ঘুরে দেখে শুনে কিনছেন পোশাক। ফলে দর্জি পাড়ায় যেন ফুসরত নেই কারিগরদের। দিন-রাত নানা ঢংয়ের পোশাক বানাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা। যে কোন ভাবেই ঈদের আগে পোশাক তৈরি করে ডেলিভারি করতে হবে তাদের।
ঈদে নতুন পোশাক কিনতে আসা ক্রেতা তনśী ইসলাম, আফরোজা খানম, আহম্মেদ রিজভী, হাসিব মুন্সি জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছর পোশাকের দাম একটু বেশী। গত বছর যে থ্রি পিছের দাম ছিল এক হাজার থেকে ১৫’শ টাকা এ বছর সেই থ্রি পিছের দাম ১৯’শ থেকে আড়াই হাজার টাকা। একই পোশাক একেক দোকানে একেক দামে বিক্রি হ”েছ। ফলে নতুন পোশাক কিনতে গিয়ে আমাদের ভোগান্তিতে পড়তে হ”েছ। আমাদের বিভিনś দোকান ঘুরে দর দাম করে পোশাক কিনতে হ”েছ।
বিক্রেতা জারা ফ্যাশনের মো: তরিকুল ইসলাম কামাল, শেখ তরিকুল, মা-কালী গার্মেন্টেসের নিখিল চন্দ্র সাহা জানান, এ বছর গরম পড়ায় সুতি পোশাকের কদর রয়েছে বেশি। অন্যান্য বারের তুলনায় বিক্রিও বেশি হ”েছ। ডিজাইনের কারণে মোকামে এ বছর পণ্যের দাম একটু বেশী। তাই বেশী দামে কেনায় বেশী দামে বিক্রি করতে হ”েছ। তবে ক্রেতারা বিভিনś দোকান ঘুরে দেখে শুনে কম দামে পণ্য কিনছেন। গোপালগঞ্জের ঈদ বাজারে নানা ডিজাইনের পোষাক থাকলেও মূলত: ভারতীয় ও চাইনিজ পোষাকই বাজার দখল করে রেখেছে। তবে দেশীয় সুতি কাপড়ের কদর কমেনি এখানকার ঈদ বাজারে।
তবে সম্প্রতি শহরের বিভিনś সড়কে চলছে পৌরসভার উনśয়ন কাজ। এ উনśয়ন কাজ ঈদ বাজার করতে আসা লোকজনের ভোগান্তি বাড়িয়েছে। বিশেষ করে পাইপ বসিয়ে ড্রেন নির্মাণের কারণে শহরের বিভিনś সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এ থেকে বাদ যায়নি শহরের মূল কেন্দ্র বিন্দু চৌরঙ্গী। ব্যবসায়ীরা জানালেন ঈদের পরে ব্যবসায়ীক এলাকায় খুড়াখুড়ির কাজ করলে ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের সুবিধা হতো।
ধনী বা দরিদ্র যেই হোক না কেন সবাই এখন ঈদ বাজার মুখি। ঈদে স্বজনদের জন্য নতুন জামা-কাপড় কিনতে ঈদ বাজারে ভিড় করছেন। আর তাই শেষ মুহুর্তে গোপালগঞ্জের বাজার গুলোও জমে উঠেছে।

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD