সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৬ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
কেশবপুরে জেলা বিএনপি নেতা নয়ন চৌধুরীর ১১তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত বানারীপাড়ায় প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে যুবলীগের বৃক্ষ রোপন মুজিব শতবর্ষ নওগাঁ জেলা দাবা লীগ-২০২১ উদ্বোধন প্রাথমিকের শিক্ষকরা বাড়ি বসেই পাচ্ছেন অবসর উত্তর ছুটি ও পেনশনের সুবিধা নড়াইলে পুলিশের সাপ্তাহিক মাস্টার প‍্যারেড পরিদর্শন করলেন এসপি প্রবীর কুমার রায় মুন্সীগঞ্জে নদী তীর থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার জেলা শিক্ষা অফিসারের মহিশালবাড়ী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় পরিদর্শন। সিএসও’র সাথে উন্মুক্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জ ইউনাইটেড কমাশির্য়াল ব্যাংক লিঃ এর শুভ উদ্ভোধন করেন পৌর মেয়র নাদের বখত্ গৌরনদীতে কলেজের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধণ
গোপালগঞ্জে আশা চিনা বাদামের বাম্পার ফলন

গোপালগঞ্জে আশা চিনা বাদামের বাম্পার ফলন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জে পারটেক্স এ্যাগ্রো লিমিটেডের আশা চিনা বাদামের বাম্পার ফলন হয়েছে। প্রতি বিঘায় এ জাতের বাদাম ১২ মন উৎপাদিত হয়েছে। প্রচলিত জাতের তুলনায় আশা চিনাবাদাম দ্বিগুন ফলন দিয়েছে। এ বাদাম আবাদ করে কৃষক লাভবান হয়েছেন। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার উলপুরে পারটেক্স এ্যাগ্রো লিমিটেড আয়োজিত মাঠ দিবস থেকে এ তথ্য জানানো হয়। মাঠ দিবসে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: মিজানুর রহমান। পারটেক্স এ্যাগ্রো লিমিটেডের এরিয়া ম্যানেজার আকরাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে উপ সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো: লিয়াকত হোসেন, পারটেক্সের ডিলার এনায়েত মিনা, পারটেক্সের সেল্‌স অফিসার মো: আসাদুজ্জামান, কৃষক ছিকু মোল্লা সহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন। কৃষক ছিকু মোল্লা বলেন, আমি এ বছর আড়াই বিঘা জমিতে বাদামের আবাদ করেছি। প্রতি বিঘায় ১২ মন বাদাম ফলেছে। প্রচলিত জাতের বাদাম প্রতি বিঘায় মাত্র ৭ থেকে ৮ মন ফলে। এক বিঘায় বাদাম চাষে ব্যয় হয়েছে ৮ হাজার টাকা। আশা করছি বাদাম বিক্রি করে বিঘা প্রতি ১৬ হাজার টাকা লাভ হবে। আবহাওয়া বাদাম চাষের অনুকূলে থাকলে আশা চিনা বাদামের ফলন আরো বেশি পেতাম। আমার ক্ষেতের বাদাম দেখে অনেকেই এ বাদাম চাষের আগ্রহ দেখিয়েছে। পারটেক্স এ্যাগ্রো লিমিটেডের এরিয়া ম্যানেজার আকরাম খান বলেন, আশা চিনা বাদাম আরো বেশি ফলন দিতে সক্ষম। এ জাতের বীজে অবচয় ও চিটা কম হয়। বীজ ভালো গজায়। গাছ মারা যায় না। খোসার মধ্যে বাদামের আকার প্রচলিত বাদামের থেকে বড়। তাই এ বাদাম আবাদ করে কৃষক লাভবান হয়েছেন। আগামীতে গোপালগঞ্জে এ জাতের বাদাম চাষ সম্প্রসারিত হবে। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: মিজানুর রহমান বলেন, এ বছর আবহাওয়া বাদাম চাষের অনুকূলে ছিলোনা। প্রতিকূল পরিবেশের মধ্য দিয়েও গোপালগঞ্জে পারটেক্সের আশা চিনা বাদাম ভালো ফলন দিয়েছে। এটি কৃষি উৎপাদনের ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখেছে।

Please Share This Post in Your Social Media



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD