শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ০২:১১ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
ময়মনসিংহে অসুস্থ জসিমের পাশে দাড়ালেন রওশন এরশাদ এমপি সাহারা খাতুন ছিলেন সৎ ও নিবেদিতপ্রাণ রাজনীতিবিদ। রওশন এরশাদ।। ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে বৈরচুনায় আশরাফুলের ব্লেডের আঘাতে আরিফুল গুরুতর আহত ইতিহাসের সব রেকর্ড ভেঙে ৬৬০টি থানার ওসির সঙ্গে ভার্চুয়াল সম্মেলন করলেন আইজিপি সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ্যাড. সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে এমপি শিবলী সাদিকের শোক সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন মারা গেছেন করোনা আক্রান্ত হয়ে লেফটেন্যান্ট কর্নেল আনোয়ারুল আজীম হেলালের মৃত্যু বর্ডার গার্ড প্রধান মেজর জেনারেল মোঃ সাফিনুল ইসলাম রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞায় বেনাপোলে নজরদারী জোড়দার মোংলায় দিপঙ্কার মৃধা’র ১০ হাজার মাস্ক বিতরণের প্রথম ধাপে ১২’শ বিতরণ
সাতক্ষীরার মাস্টারমাইন্ড মঈনকে চার কোটি জাল টাকা সহ মিরপুর থেকে আটক

সাতক্ষীরার মাস্টারমাইন্ড মঈনকে চার কোটি জাল টাকা সহ মিরপুর থেকে আটক


শেখ রিপন খুলনা ব্যুরোঃ

সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার মদনপুর গ্রামের মৃত সরাফ উদ্দিনের ছোট ছেলে মঈনকে
জাল টাকা তৈরির অভিযোগে মিরপুর ও বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার দুটি বাসা থেকে চার কোটি টাকার জালনোটসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। সোমবারের ওই অভিযানে র‌্যাব জাল টাকা বানানোর যন্ত্রপাতিও উদ্ধার করে। যার দাম ২৫ থেকে ৩০ কোটি টাকা।র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক সারোয়ার বিন কাশেম সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ঈদ সামনে রেখে পশুর হাট টার্গেট করে জাল টাকার কারবার চলছে কি না সেই খোঁজখবর রাখছিল র‌্যাব–২। তারই অংশ হিসেবে অভিযানটি পরিচালিত হয়। অভিযানে গ্রেপ্তার করা হয় মো. সেলিম (৪০), মো. মনির (৪৫), মো. মঈন(৪০) , রমিজা বেগম (৪০), খাদেজা বেগম (৪০) ও অপ্রাপ্তবয়স্ক একজন (১৫)।

র‌্যাব জানায়, এই চক্রটি বিভিন্ন পদ্ধতিতে জাল টাকা তৈরি করে বাজারে ছাড়ছিল। বিশেষ করে ১০০ টাকার নোটকে সিদ্ধ করে তার ওপর ৫০০ টাকার ছাপ বসায়। এই কাজে তারা বিশেষ রং, কাগজ ও প্রিন্টার ব্যবহার করে। তাদের তৈরি ১০০০ চাকার জাল নোট দেখে সেগুলো আসল না নকল চেনার সাধারণ মানুষের পক্ষে অসম্ভব। চার কোটি টাকার জালনোট ছাড়াও মিরপুর ও বসুন্ধরার বাসা থেকে ৫০০ ও ২০০০ রুপির মতো দেখতে ৪০ লাখ জাল রুপি উদ্ধার হয়েছে।
গ্রেপ্তারকৃতরা জানায়, মঈন সহযোগী মনিরকে জাল টাকা ছাপানোয় সহযোগিতা করত। রমিজা বেগম সেলিমকে কাগজে আঠা লাগানোর কাজে সহয়তা করতো এবং প্রয়োজনীয় ফুটফরমাশ খাটত। খাদিজা বেগম এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক কিশোর সাদা কাগজে নিরাপত্তা সুতার জলছাপ দেওয়ার কাজ করত। গোয়েন্দা সূত্র ও গ্রেপ্তারকৃতরা আরও জানিয়েছে, এই বিপুল পরিমাণ জাল টাকা আসন্ন ঈদে বাজারে ছাড়ার পরিকল্পনা ছিল চক্রটির।র‌্যাব বলেছে, করোনার এ সময়ে জাল টাকার ছড়াছড়ি দেশের আর্থসামাজিক অবস্থাকে দুর্বল করে দিতে পারে। জাল টাকার একটি বিশাল সিন্ডিকেট দেশের ভেতরে কাজ করছে। র‌্যাব এদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখবে।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD