বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১২:৫০ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সাকিবের বিশ্ব রেকর্ডের সাথে বাংলাদেশর জয়!

সাকিবের বিশ্ব রেকর্ডের সাথে বাংলাদেশর জয়!


মোহাম্মদ মুনতাসীর মামুন
স্পোর্টস রিপোর্টারঃ
সাকিবের ঘুর্ণিতে উড়ে গেল আফগানিস্তান। আম্পায়ারের বিতর্কিত আউটের পরেও ৭ উইকেটে ২৬২ রান তোলে বাংলাদেশ। ২৬৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ধীর গতিতে শুরু করে আফগানিস্তান। এরপরই খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসে আফগান দুই ওপেনার। তবে সাকিবের প্রথম ওভারে ৪৯ রানে মাথায় ঝলে ওঠা রহমত শাহ ফিরে যান। ৩৫ বলে ৩টি চার হাঁকিয়ে ২৪ রান করেন তিনি।

এরপর মোসাদ্দেকের দুর্দান্ত বলে মুশফিকে স্ট্যাম্পিংয়ে শিকার হন হাশমতাউল্লাহ শহিদী। ৩১ বলে ১১ রান করে ফিরে তিনি। তবে চাপ সামলে হাফেসেঞ্চুরি করার পথে এগিয়ে যান গুলবদীন নাঈব। কিন্তু সাকিবের আটসাটো বলে লিটনে হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে ৭৫ বলে ৪৭ রান করে ফিরে যান। এরপর আবারও সাকিবের আঘাত কোন রান না করে ফিরে যান মোহাম্মদ নবী।

চতুথ উইকেট শিকার করলেন সাকিব। ৩৮ বলে ২০ রান করা আসগর আফগানকে ফিরিয়ে দেন তিনি। এরপর ইকরাম আলীকে রান আউট করে ফিরিয়ে দেন লিটন দাস। ১২ বলে ১১ রান করে ইকরাম। ৬ উইকেট পরার পর কিছুটা হলেও ম্যাচে ফেরার চেস্টা করে আফগানিস্তান। কিন্তু রেকর্ড ৫টি উইকেট নিয়ে সে চেস্টা প্রতিহত করেন সাকিব। ২৩ বলে ২৩ রান করা নজিবুল্লাহকে ফিরিয়ে দেন সাকিব।

সাকিবের পর মোস্তাফিজের আঘাত। ৩ বলে ২ রান করা রশিদ খানকে ফিরিয়ে দিলেন তিনি।

এর আগে বিশ্বকাপে নিজেদের ৭ম ম্যাচে আজ বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকাল ৩:৪০ মিনিটে। বৃষ্টির কারণে ১০ মিনিটে খেলাটি শুরু হয়। ১০ মিনিটে দেরিতে অনুষ্ঠিত টস জিতে প্রথমে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রন জানিয়েছে আফগানিস্তান।

ব্যাট করতে নেমে শুরু ভালো করলেও দুর্দান্ত এক ক্যাচের ফিরে যান লিটন দাস। মুজিব উর রহমান বলে ২টি চার হাঁকিয়ে ১৬ রান করে ফিলে যান। তবে বলটা মনে হচ্ছিল, মাটিতে লেগেছে। আম্পায়ার কয়েকবার রিপ্লে টেনে টেনে দেখলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আউটের সিদ্ধান্তই দিলেন। মুজিব উর রহমানের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরলেন লিটন দাস। টিভি আম্পারের দায়িত্বে ছিলেন পাকিস্তানে আলিমদার।

এর আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে এমন বিতর্কিত আউট দিয়েছিলেন তিনি। অথচ লিটনের শুরুটা হয়েছিল দুর্দান্ত। মূলত ওপেনিং জুটিতে তিনিই ভালো খেলছিলেন। এরপর প্রথম থেকে ধীর গতিতে খেলা তামিম তার খোলস ছেড়ে বের হতে পারলেন না। শেষ পর্যন্ত মোহাম্মদ নবীর বলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান। ৫৩ বলে ৪টি চার।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD